বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হ’ত্যার পর থেকে মা রোকেয়া খাতুনের আহাজারি এখনো থামেনি। ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া করেন না, সবকিছুই যেন তার এলোমেলো।আবরারের মাকে সান্ত্বনা দিতে শুক্রবার কুষ্টিয়া যায় বুয়েটের কিছু শিক্ষার্থী।

তারা অংশ নেয় দুপুরের খাবার ও মসজিদে আয়োজিত দোয়া মাহফিলে। বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকের বুয়েটিয়ান পেজে ছবি পোস্ট করেছেন তারা।

সেখানে কয়েকটি ছবির সঙ্গে লেখা হয়েছে, অনেকদিন হচ্ছে, সন্তান হারানোর শোকে আমাদের মা ঠিকমত খেতে পারছেন না। আজ কুষ্টিয়ায় আমাদের প্রিয় বন্ধু-ভাই আবরারের গ্রামের বাড়িতে আমাদের প্রিয় দুঃখিনী মাকে নিয়ে একসঙ্গে দুপুরের খাবার খেলাম।

জানি, আমরা কেউই আবরারকে ফিরিয়ে দিতে পারবো না, পারবো না প্রিয় মায়ের সন্তান হারানোর দুঃখ ভুলিয়ে দিতে। কিন্তু আমরা সবাই সব সময় আবরার হয়ে থাকতে চাই আমাদের মায়ের সঙ্গে।