উৎসবমুখর পরিবেশে সারা দেশে খুদে শিক্ষার্থীদের মন্ত্রিসভা নির্বাচন চলছে। শনিবার সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে দেশের সব মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও দাখিল মাদ্রাসায় (ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি) স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা ভোট দিচ্ছে।

সকাল ৯টায় শুরু হওয়া এ ভোটগ্রহণ বিরতিহীনভাবে চলবে দুপুর ২টা পর্যন্ত। বিকালে বিজয়ীদের তালিকা প্রকাশ করা হবে। ঢাকার মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সরেজমিন দেখা যায়, নির্বাচন উপলক্ষে সকাল ৭টা থেকে স্কুলড্রেস পরে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে শুরু করে।

বিদ্যালয় প্রাঙ্গণজুড়ে সাদা-কালো ও রঙিন কাগজে হাতে লেখা পোস্টার ঝোলানো হয়েছে।

সেসব পোস্টারে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা প্রার্থীদের পক্ষে ভোট চাওয়া হয়েছে।

ভোট কক্ষে জাতীয় পর্যায়ের ভোটের মতোই পোলিং অফিসার, প্রার্থীদের এজেন্টরা উপস্থিত রয়েছে। তারা নানাভাবে ভোটারদের সহায়তা করছে। সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে খুদে শিক্ষার্থীরা তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করছে। শিক্ষার্থীদের এ নির্বাচন কার্যক্রম পরিদর্শন করতে সকালে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে আসেন। এ সময় তিনি বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র ঘুরে দেখেন।

খুদে শিক্ষার্থীদের সরাসরি ভোটে নেতা নির্বাচনের এ পদ্ধতির ভূয়সী প্রশংসা করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি বলেন, জীবনে সব পর্যায়ে একজনকে দলনেতা মানতে হয়, শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে সেই জ্ঞানার্জন করতে পারছে। শিশুকাল থেকে গণতন্ত্রের চর্চা এবং গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে পারছে। অন্যের মতের প্রতি সহিষ্ণুতা ও শ্রদ্ধা প্রদর্শন শিখছে শিশুরা।

উল্লেখ্য, শিক্ষার্থীদের শিখন শেখানোর কার্যক্রমে শিক্ষকদের সহায়তা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শতভাগ ভর্তি ও ঝরে পড়া রোধে সহায়তা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিবেশ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ ও ক্রীড়া, সাংস্কৃতিকসহ সহশিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে এই স্কুল কেবিনেট ব্যবস্থা।

এ বছর দেশের আট বিভাগ ও আটটি মহানগরের আওতাধীন ৫৫৯ উপজেলা/থানায় ২২ হাজার ৯২৬ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেতা নির্বাচন হচ্ছে। এর মধ্যে ১৬ হাজার ৩৮৪টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ৬ হাজার ৫৪২টি দাখিল মাদ্রাসা রয়েছে।

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১ লাখ ৩১ হাজার ৭২টি ও মাদ্রাসায় ৫২ হাজার ৩৩৬টি পদে প্রার্থীরা নির্বাচন করছেন। নির্বাচনে ১ কোটি ১৫ লাখ ৫৩ হাজার ৯১৬ ভোটার রয়েছে। তারা আজ তাদের নেতা নির্বাচন করবে।