নীল ছবির দুনিয়ায় তাঁকে চেনেনা এমন মানুষ পাওয়া খুবই দুষ্কর। দীর্ঘদিন ধরে অ্যাডাল্ট ছবির দুনিয়ায় একছত্র আধিপত্য চালিয়ে গিয়েছেন তিনি। সবাই একডাকেই চেনে তাঁকে। তিনি আর কেউ নন, খোদ মিয়া খলিফা। পর্ন দুনিয়ায় দাপটের সঙ্গে রাজত্ব করে সম্প্রতি এক বোমা ফাটিয়েছেন তিনি। বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন মিয়া। জীবনসঙ্গীর নামও এনেছেন প্রকাশ্যে। জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিনের বয়ফ্রেন্ড রবার্ট স্যান্ডবার্গের সঙ্গেই বিয়ে করতে করতে চলেছেন মিয়া।

প্রথমে যদিও তিনি জানান, যে তাঁদের বিয়ের বেশ কিছুদিন দেরি রয়েছে। প্রায় দেড় বছর দেরিতে বিয়ের পরিকল্পনা থাকলেও হঠাত্ই তড়িঘড়ি বিয়ে এগিয়ে এনেছেন তিনি। আগামী বছরের শুরুতেই সাত পাকে বাঁধা পড়তে চলেছেন মিয়া খলিফা। ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছেন বিয়ের তোড়জোড়। তারই ছবি শেয়ার করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

একটি সাদা শর্ট ওয়েডিং গাউন পরিহিত মিয়ার ছবি ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়। নেটিজেনদের মধ্যে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে এই পোশাকেই কী তবে বিয়ের দিন দেখা যাবে মিয়াকে! তবে এই বিষয়ে এখনও মুখ খোলেননি তিনি। মাঝে মাঝেই হবু বরের সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি শেয়ার করেন মিয়া। কিছুদিন আগেই একটি রেস্তোরাঁতে একসঙ্গে ডিনারে গিয়েছিলেন মিয়া ও রবার্ট। অনুরাগীদের সঙ্গে সেই ছবিও ভাগ করে নেন নীল ছবির নায়িকা।

এর মা্ঝেই নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে আরও একটি ছবি পোস্ট করেছেন মিয়া খলিফা। সেখানে নিজেকে নোবেল শান্তি পুরস্কার প্রাপ্ত মালালা ইউসুফজাইয়ের সঙ্গে তুলনা করেছেন তিনি। ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন, “নিজের সন্তানদের বলব আমি মালালা ছিলাম”।

আসলে রসিকতা করেই এই ক্যাপশান দিয়েছেন তিনি। হালের সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচলিত ‘মিম’ নকল করেই এই ধরণের ক্যাপশান দেন মিয়া। প্রসঙ্গত, এই নিয়ে দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন তিনি। এর আগে ২০১১ সালে স্কুলের এক বন্ধুর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। তবে সেই বিয়ের মেয়াদ ছিল মাত্র ৫ বছর।