যুক্তরাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতি ক্রমশ সংকটজনক হচ্ছে।করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে কাঁপছে যুক্তরাষ্ট্র।পরিস্থিতি মোকাবিলায় হালে পানি পাচ্ছেন না বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী দেশের ‘বেপরোয়া’ প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। এই পরিস্থিতিতে কোভিড-১৯ মহামারীর প্রকোপ রুখতে ওষুধ চেয়ে ভারতকে কার্যত হুমকি দিয়েছেন তিনি।

সোমবার কূটনীতির দফারফা করে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাফ বলছেন যে, যুক্তরাষ্ট্রকে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ওষুধ না দিলে যুক্তরাষ্ট্র পাল্টা পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবো ।

হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের ট্রাম্প বলেন, তিনি (নরেন্দ্র মোদি) এই ওষুধ সরবরাহ না করলে আমি আশ্চর্য হবো। আপনারা জানেন আমেরিকার সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক খুবই ভালো। এ নিয়ে রবিবার মোদির সঙ্গে ফোনে আমার কথাও হয়েছে। আমি তাঁর কাছে ওষুধ রপ্তানি করার আর্জি্ও জানিয়েছি।তবে মোদি যদি ওষুধ না দেন তাহলে আমরাও পাল্টা পদক্ষেপ নেবো।          

মারণ ভাইরাসের দাওয়াইয়ের হদিশ এখনও মেলেনি। তবে পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যবহার হচ্ছে ম্যালেরিয়া প্রতিরোধক ওষুধ হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন। সেই দাওয়াই বিপুল পরিমাণে রপ্তানি করে ভারত। কিন্তু করোনার জেরে আপাতত বিদেশে রপ্তানি বন্ধ রেখেছে ভারত সরকার। তা ফের চালু করার আবেদন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ফোন করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। রবিবার রাতে দুজনের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ কথাও হয়। টুইট করে সে কথা জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিই।   

যুক্তরাষ্ট্রে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লক্ষ ৬৭ হাজার ৮৫ জন মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৮৭৬ জনের।চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৯ হাজার ৬৭১ জন।