বাংলাদেশের হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার অলিপুরে কাজ থেকে ফেরার পথে এক কিশোরী (১৫) সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এক ইজি বাইকচালকসহ তাঁর দুই বন্ধুর বিরুদ্ধে এই ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

গত রবিবার সকাল ৭টার দিকে অলিপুর টিক্কা কম্পানির রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে। মুমূর্ষু অবস্থায় ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী কিশোরীর মা জানান, তাঁর মেয়ে একটি কারখানায় কাজ করে। গত শনিবার নাইট শিফটের কাজ শেষে রবিবার সকালে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এলাকা থেকে একটি ইজি বাইকে খাহুড়া গ্রামের উদ্দেশে রওয়ানা দেয়।

রাস্তায় ওই ইজি বাইকের চালক বাখরনগর গ্রামের সরমুজ আলীর ছেলের সুরুজ ইজি বাইক থামিয়ে তাঁর মেয়েকে পাশের ঝোপে নিয়ে ধর্ষণ করেন।

সুরুজের দুই বন্ধু লক্ষীপুর গ্রামের হিরাজ মিয়ার ছেলে কবির মিয়া (৩০) এবং একই গ্রামের সরমুজ আলীর ছেলে কামরুল মিয়াও (২৫) ধর্ষণ করেন। মেয়ের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে তাঁরা পালিয়ে যান। শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি মো. মোজাম্মেল হক গতকাল সোমবার বিকেলে বলেন, এখনো কোনো অভিযোগ পাননি।