ধর্ষণকারীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে সারা দেশ যখন সোচ্চার, ঠিক তখনই নারীর পোশাক নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের পর পরোক্ষভাবে ক্ষমা চাইলেন চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক ও নায়ক অনন্ত জলিল।

প্রত্যাহার করে নিলেন প্রকাশিত ভিডিও থেকে পুরনো বক্তব্য।

গত শনিবার  (১০ অক্টোবর) রাতে ধর্ষক ও ধর্ষিত নারীদের উদ্দেশ করে নিজের ফেসবুক পেজে বক্তব্য দিয়ে একটি ভিডিও প্রকাশ করেন এই তারকা।

সেখানে ধর্ষণের কারণ হিসেবে উল্লেখ করেন নারীদের অশালীন পোশাক! অনন্ত জলিল মনে করেন, ধর্ষকরা অশালীন পোশাক দেখে উদ্বুদ্ধ হয়।

এই বক্তব্য প্রকাশের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার বিরুদ্ধে সোচ্চার হন তারকাসহ সাধারণ মানুষ। অনেকটা প্রতিবাদের মুখে ভিডিও থেকে নারীদের উদ্দেশে বলা অংশটুকু কেটে বাকি ভিডিওটি পুনরায় পোস্ট করেন অনন্ত।

আগের ভিডিওটি মুছে ফেলেন। পাশাপাশি নতুনটির ক্যাপশনে ক্ষমা চেয়ে লেখেন, ‌‘সাম্প্রতিক সময়ে দেশে ধর্ষণ, বিশেষ করে শিশু ধর্ষণ ও ধর্ষণ-পরবর্তী হত্যার মতো ঘৃণ্য অপরাধ বেড়েই চলেছে।

এই অপরাধের সঙ্গে জড়িত অপরাধীর দ্রুততম সময়ে বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার বিকল্প কিছু নেই। আমরা চাই, নারী-পুরুষের সৌহার্দ্যপূর্ণ সমঝোতামূলক সম্পর্ক, শ্রদ্ধা ও ভালোবাসার সম্পর্ক।

গত শনিবারের (১০ অক্টোবর) ভিডিওতে আমি মূলত মেয়েদেরকে শালীনতা বজায় রাখার জন্য বলতে চেয়েছি।’

অনন্ত জলিল আরো বলেন, ‘অনেকেই বিষয়টিকে পজিটিভভাবে নিয়েছেন আবার অনেকেই নেগেটিভভাবে নিয়েছেন। আমি কোনও বিতর্কে জড়াতে চাই না। তাই আমি উক্ত বিষয়টি কারেকশন করে দিলাম। কেউ ভুল বুঝে থাকলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।’

0000

আজকের জনপ্রিয়

0000