চীন থেকে উদ্ভুত মরণভাইরাস করোনা এখন বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক। ভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা এখন সাড়ে ৩৪ হাজারেরও বেশি। আর মৃত্যু হয়েছে ৮ শতাধিক।

করোনাভাইরাস এ পর্যন্ত ২৮টি বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এসব দেশের মধ্যে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, ইতালি, বেলজিয়াম, ফিনল্যান্ড, রাশিয়া, সুইডেন, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, মালয়েশিয়া, ভারত, নেপাল, ফিলিপাইন, কম্বোডিয়া, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, ভিয়েতনাম ও তাইওয়ান।

নতুন এ ভাইরাস নিয়ে বিশ্বজুড়ে পাঠকের প্রশ্নের উত্তর দিয়েছে বিবিসি। বিবিসির কাছে স্টেফান নামের এক ব্যক্তি প্রশ্নে করেন, চীনের উহান শহর থেকে যুক্তরাজ্যে পাঠানো জিনিসপত্রের মাধ্যমে কি করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে?

তার প্রশ্নের উত্তরে বিবিসির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, জিনিসপত্রের মাধ্যমে ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি আছে-এমন কোনও প্রমাণ নেই।

তবে, করোনাভাইরাস এবং সার্সসহ কিছু রোগ মানুষের হাঁচি বা কাশির মাধ্যমে জীবাণু সংক্রমণ ঘটতে পারে।

তবে নতুন করোনাভাইরাস এভাবে ছড়ায় কিনা সেটা এখনও বলা হয়নি।

যদি ভাইরাসটি এভাবে ছড়ায়, তাহলে আন্তর্জাতিক পণ্য আনা-নেয়ায় বড় ধরণের সমস্যা সৃষ্টি হবে কিনা সেটা নিয়ে প্রশ্ন থাকবে।

শীতল ভাইরাসগুলো মানুষের দেহের বাইরে ২৪ ঘণ্টারও কম সময় বাঁচে।

যদিও কনোরোভাইরাস (অন্ত্রের একটি গুরুতর পোকা) শরীরের বাইরে কয়েক মাস টিকে থাকতে পারে।

এখন পর্যন্ত সবচেয়ে আশ্বস্ত হওয়ার মতো বিষয় হল, এই ভাইরাসটি ছড়াতে হলে অন্য ব্যক্তির সাথে ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে আসতে হবে, বলেন একজন স্বাস্থ্যসেবা কর্মী।

সূত্র: বিবিসি