ভারতের সংঘটিত নির্ভয়া ধর্ষণ মামলার আসামীদের পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী ১ ফেব্রুয়ারি শনিবার ফাঁসি হচ্ছে না। অনির্দিষ্টকালের জন্য এই ফাঁসি কার্যকর স্থগিত ঘোষণা করেছে দিল্লির আদালত। পরবর্তী রায় প্রদানের আগ পর্যন্ত মৃত্যু পরোয়ানায় স্থগিতাদেশ জারি করা হয়েছে।

চার দোষীর পক্ষ থেকে ফাঁসির সাজা আটকানোর জন্য বেশ কয়েকবার আবেদন জানান হয়েছিল। দাখিল করা হয়েছিল একাধিক পিটিশন। শুক্রবার শীর্ষ আদালতে আরও একটি পিটিশন জমা পড়ে। শেষ পর্যন্ত বিনয় শর্মার পিটিশনে আটকে যায় চার ধর্ষকের ফাঁসি। চার দোষীর অন্যতম পবন গুপ্তের বক্তব্য, ২০১২ সালে নির্ভয়া ধর্ষণের সময় সে নাবালক ছিল। দুই সপ্তাহে দুই বার সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল করেছিল সে।

কিন্তু দুই বারই সেই পিটিশন বাতিল করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। ফাঁসির সাজা পুনর্বিবেচনা করার জন্য গত সপ্তাহেই আবেদন করা হয়েছিল। সেটাও বাতিল করে শীর্ষ আদালত। আগামীকাল সকাল ৬টায় নির্ভয়ার চার ধর্ষকের ফাঁসি হওয়ার কথা ছিল। সেই উদ্দেশ্যে ফাঁসুড়েকে গতকাল বৃহস্পতিবার তিহার জেলে নিয়ে ফাঁসির মহড়া শুরু হয়েছিল। কারাগারে সকল প্রস্তুতিও সম্পন্ন হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আটকে গেল ওই চারজনের ফাঁসি।