প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের উদ্দেশে যাওয়ার পথে ধর্ষণবিরোধী মিছিলে বাধা দিয়ে তাতে লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এতে পাঁচজন আহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে বর্বরোচিত নির্যাতনসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে বিভিন্ন সংগঠন এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শাহবাগ মোড়ের গণজমায়েত থেকে দুপুর দেড়টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের উদ্দেশে রওনা দেয় ধর্ষণবিরোধী মিছিলটি। আন্দোলনকারীরা প্রথমে শাহবাগ থেকে টিএসসির দিকে যান।

সেখানে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অবস্থান নেওয়া আন্দোলনকারীদের সঙ্গে নিয়ে রওনা দেয় মিছিলটি। কিছুক্ষণ পর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের সামনে পৌঁছালে পুলিশ তাতে বাধা দেয়। একপর্যায়ে আন্দোলনকারীরা সেখানেই অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে থাকলে পুলিশ মিছিলে লাঠিচার্জ করে। এতে পাঁচজন আহত হন।

আন্দোলনকারীদের একজন জানান, মিছিলটি রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল এলাকায় পৌঁছালে আন্দোলনকারীদের বাধা দেয় পুলিশ। একপর্যায়ে তাদের ওপর লাঠিচার্জ শুরু করে পুলিশ। পরে পুলিশের সঙ্গে ছাত্র ইউনিয়নের নেতাকর্মীদের ধস্তাধস্তি শুরু হয়। পরে আহতদের উদ্ধার করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের দিকে ফিরে যান তাঁরা।

ওই আন্দোলনকারী আরো জানান, পুলিশের লাঠিচার্জে মোহাম্মদপুর থানা ছাত্র ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়নের শিক্ষা ও গবেষণা সম্পাদক আসমানি আশাসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন৷ তাঁদেরকে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে৷

এর আগে ‘ধর্ষকের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’ ব্যানারে আজ মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে শুরু হয় গণজমায়েত। ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টসহ প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের নেতাকর্মীরা কালো পতাকা নিয়ে এতে যোগ দেন। অংশ নেন সাহিত্যিক, লেখক, ব্লগাররা‌ও।

আন্দোলনকারীরা জানান, আজকের কর্মসূচিতে বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। এঁদের মধ্যে ছিলেন যুব সংগঠন, সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা। যোগ দিয়েছেন সর্বস্তরের সাধারণ মানুষও। এছাড়া টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ব্যানারে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। মূলত সেখানে বিভিন্ন হলের ডাকসু নেতারা ছিলেন। তাঁদের সঙ্গে যোগ দেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসব সাধারণ শিক্ষার্থীরা আসেন রাজধানীর মোহাম্মদপুর, মিরপুরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অবস্থান নেন আন্দোলনকারীরা। এর আগে বৃষ্টি উপেক্ষা করে শাহবাগ মোড়ে আসতে শুরু করেন ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনকারীরা। তবে কর্মসূচিতে বাধা আসে বৃষ্টির কারণে। পরে বৃষ্টি কমলে বেলা ১২টার দিকে শুরু হয় কর্মসূচি।

এর আগে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে বর্বরোচিত নির্যাতনের প্রতিবাদে গতকাল সোমবার রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন হয়। ধর্ষণবিরোধী গণজমায়েতে উত্তাল ছিল রাজধানীর শাহবাগ। উত্তরায় প্রায় এক ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা। এসব সমাবেশ ও বিক্ষোভ কর্মসূচিতে কেবল নোয়াখালীর ওই ঘটনা নয়, সিলেটের এমসি কলেজে সংঘবদ্ধ ধর্ষণসহ সারা দেশে নারী নির্যাতনের ঘটনা বৃদ্ধিতে উদ্বেগ জানিয়ে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করা হয়।

0000

আজকের জনপ্রিয়

0000