আসল-নকলের ভিড়ে নিজের জন্য উপকারী খাঁটি পণ্যটি তৈরি করে নিন ঘরেই।

ভাবছেন কীভাবে?

নিম সাবান মুখসহ সম্পূর্ণ দেহে ব্যবহার করা যায়। ব্রণের সমস্যা ও ফুসকুড়ি দূর করে ত্বককে করে তোলে নিখুঁত ও দাগহীন, শরীরের খোস-পাঁচড়ার সমস্যাও দূর করে এই সাবান। ঘরে থাকা সাধারণ সামগ্রী আর খানিকটা নিম পাতা হলেই তৈরি করা সম্ভব নিম সাবান।

যা লাগবে: নিম পাতা এক কাপ/ ২-৩ টেবিল চামচ নিমের রস, নিম এসেনশিয়াল অয়েল কয়েক ফোঁটা (না দিলেও সমস্যা নেই), লেবুর রস কয়েক ফোঁটা (না দিলেও সমস্যা নেই), অলিভ অয়েল ১ টেবিল চামচ, সোপ বেজ আধা কাপ।

সোপ বেজ হচ্ছে সাবান তৈরির মৌলিক উপাদান। এটা বিদেশি পণ্য বিক্রি হয় এমন স্থানে পাওয়া যাবে। এছাড়া আমাজন.কমসহ অনলাইন স্টোরগুলোতে পাওয়া যাবে। যদি সোপ বেজ খুঁজে না পান, তাহলে গ্লিসারিন বেজড যে কোনো সাবান নিলেই হবে। ঘরোয়া সাবান তৈরির জন্য বিদেশি “পিয়ারস” সাবানটি ভালো। এটি ব্যবহার করলেই চলবে নিম সাবান তৈরির ক্ষেত্রে।

প্রণালি: পানি ছাড়া নিম পাতা ভালো করে বেটে নিন। এরপর নিমের রসটুকু ভালো করে ছেঁকে নিন। কয়েক টেবিল চামচ ঘন নিমের রস হলেই চলবে। একটি হাঁড়িতে পানি নিন। এর ওপরে একটি পরিষ্কার কাঁচের বাটি দিয়ে দিন। এটাকে বলে ডাবল ব্রয়লার। সোপ বেজ বা সোপ সরাসরি আগুনের তাপে না দিয়ে এভাবে গলিয়ে নিলে বেশি সুবিধা। কাঁচের বা সিরামিকের বাটি ব্যবহার করুন।

সোপ বেজ বা সাবান একটি পরিষ্কার গ্রেটার দিয়ে ভালো করে গ্রেট করে নিন এবং হাঁড়ির ওপরে বসানো বাটিতে দিয়ে দিন। একটি কাঠের চামচ দিয়ে আস্তে আস্তে নেড়ে গলিয়ে নিন।

সোপ বেজ সম্পূর্ণ গলে গেলে তাপ থেকে সরিয়ে নিন এবং দ্রুত অন্যান্য উপাদানগুলো মিশিয়ে দিন। ওপরে একটু ফেনার মতো উঠলে সেটা চামচ দিয়ে ফেলে দিন।

পছন্দমতো যে কোনো ছাঁচে আগে থেকেই অলিভ অয়েল মেখে রাখুন। সমস্ত উপাদান মেশানো সোপ বেজ সেই ছাঁচে ঢেলে দিন। ঠাণ্ডা হতে দিন। ২৪ ঘণ্টা শেষ হবার আগেই দেখবেন তৈরি আপনার নিম সাবান! ছাঁচ থেকে বের করে সাধারণ সাবানের মতো ব্যবহার করুন।

এই নিম সাবান ১০০ ভাগ নিরাপদ; কারণ এতে আছে ঘরে তৈরি করা নিমের রস। এই সাবান নিয়মিত ব্যবহারে আপনার ত্বক পাবে প্রাকৃতিক নিমের সকল গুণ এবং ক্রমস মিটে যাবে ত্বকের সকল সমস্যা। সূত্র: ইউএনবি