বর্তমান এই সময়ে আমরা সবাই সব সময় ব্যাস্ত। সকালে ঘুম থেকে উঠে রাতে ঘুমাতে যাওয়া পর্যন্ত যেন দম ফেলার ফুরসত আমাদের নেই। কিন্তু এই সময়ের ব্যাস্ততার মধ্যে আমদের সব কিছু করার কথা মনে থাকলেও, আমরা নিজেদের ফিট রাখতে ভুলে যায়। তবে নিজের এই ফিটনেসের কথা আমাদের ভুলে যাওয়া উচিত নয় কারন একটি কথা মনে রাখতে হবে যে, স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল। যদি ফিটনেস ধরে না রাখতে পারেন তাহলে সামান্য বয়স বাড়ার সাথে সাথেই দেখা দিবে নানা ধরনের রোগ বালাই।

নিজেকে ফিট রাখতে যা নিয়মিত করবেন –

১। সব সময় রাতে তারাতারি ঘুমিয়ে পরবেন ও একি ভাবে সকালে তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠার চেষ্টা করবেন। রাত ১০ টার মধ্যেই শুয়ে পরার চেষ্টা করবেন ও এই সময় পাশে মোবাইল পাসে রাখবেন না, তাহলে তাড়াতাড়ি ঘুম আসবে।

২। সকালে ঘুম থেকে উঠে সবার আগে এক গ্লাস হালকা গরম পানি খাবেন। এরপর যদি পারেন তাহলে খোলা পরিবেশে কিছুক্ষণ হাটবেন, আর যদি না সম্ভব হয় তাহলে ১৫ মিটিন হালকা ব্যায়াম করবেন।

৩। সকালের নাস্তা সব সময় সকাল ৮.৩০ টার মধ্যে করে ফেলবেন, আরা সেই সাথে মনে রাখবেন, সকালে নাস্তা যেন হালকা নাস্তা না হয়। সকালে অবশ্যই পেট পুরে খাবেন। সকালে নাস্তায় সব সময় ডিম রাখার চেষ্টা করুন এতে সারাদিন ক্লান্তি কম বোধ করবেন।

৪। খাবার খাওয়ার কিছুক্ষণ পর পুনরায় যদি খিদা লাগে তাহলে ভারি কোন খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। এক মুঠো বাদাম, দুই একটা খেজুর খান ও এরপর এক গ্লাস পানি খান।

৫। ভাজা পোড়া ও মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

৬। দুপুরের খাবারে প্রোটিন জাতীয় খাবার রাখুন ও সেই সাথে সালাত রাখুন।

৭। রাতে সম্ভব হলে রুটি খান এবং রাতে খাবার অবশ্যই ঘুমানোর ২ ঘন্টা আগে খাবেন।