কেজিতে দুশো টাকা ছাড়ালো পেঁয়াজের দাম। পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে দুপুরে রাজধানীর শ্যামবাজারে অভিযান চালাবে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। বিক্রেতাদের দাবি, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের পর এক লাফে পেঁয়াজের দাম কেজিতে বেড়েছে ৩০ টাকা। বাজারে সরবরাহ না বাড়লে দাম আরো বাড়বে বলেও আশঙ্কা তাদের।

প্রতিদিনই পেঁয়াজের দাম বাড়ছে কেজিতে ১০ টাকা করে। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতের পর এক লাফে পেঁয়াজের দাম কেজিতে বেড়েছে ৩০ টাকা। বিক্রেতারা বলছেন, বাজারে সরবরাহ না বাড়লে শিগগির ২০০ টাকা কেজি দাঁড়াবে পেঁয়াজের দাম। ক্রেতাদের অভিযোগ, সরকারের কোনো উদ্যোগই কাজে আসছে না।

পেঁয়াজের বাজারে অস্থিতিশীলতা যেন কাটছেই না। দুই সপ্তাহ আগে দাম কমতে শুরু করলেও আবারও বাড়তে শুরু করেছে। এবার বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে।

গেল শুক্রবার রাজধানীর খুচরা বাজারে ১০০ টাকায় এক কেজি পেঁয়াজ মিললেও, বুধবার দাম ১৭০ টাকা। একই চিত্র সারাদেশে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, ঘূর্ণিঝড়ের কারণে ২ দিন পেঁয়াজ খালাস বন্ধ ছিল। এরপরই একদিনে বেড়ে গেছে ৩০ টাকা। শিগগির দাম কমার কোনো সম্ভাবনা নেই বলেও জানিয়েছেন তারা।

এদিকে পেঁয়াজের আকাশছোঁয়া দামে হিমশিম খাচ্ছেন ক্রেতারা। বাজার নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের ব্যর্থতাও দেখছেন অনেকে। সরকারের আশ্বাস, নতুন পেঁয়াজ উঠলে এবং বিদেশি পেঁয়াজের সরবরাহ বাড়লে দ্রুত নিয়ন্ত্রণে আসবে বাজার।