পেশাদার কিলারকে ৩০ হাজার টকায় ভাড়া করে স্বামীকে খুন করে সালমা। ঘটনাটি ঘটে এক বছর আগে। সে সময় চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে খুন হন রফিকুল ইসলাম (৪৫) নামের এক ব্যক্তি। আর এ খুনের জন্য তার স্ত্রী সেই সময় স্বামীর পক্ষ থেকে বাদী হইয়ে মামলা করেন।

দীর্ঘ ১ বছর ধরে পুলিশ এই মামলাটি নিয়ে তদন্ত করেন এবং তদন্তে বেরিয়ে আসে, রফিকুলের স্ত্রী সালমাই তার স্বমীকে একজন কিলার ভাড়া করে খুন করায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার ২১ শে ডিসেম্বর সালমাকে প্রধান আসামী করে পুলিশ মামলা দায়ের করে।(মামলা নম্বর- ৪৬)।

খুনী সালমা নাটোর জেলার সিংড়া আনন্দনগর এলাকায় লুকিয়ে ছিলেন। গত রবিবার পিবি আই কর্মকর্তারা অভিযান চালিয়ে সালমাকে আটক করে সীতাকুন্ড থানায় নিয়ে যায়।

এই ঘটনায় বেরিয়ে আসে অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য। মূলত পরকীয়ার জের ধরেই এই হত্যা কান্ডটি ঘটে। রফিকুলের স্ত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক হয় প্রতিবেশী সাকিবের। পরে তারা তাদের সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতেই একজন পেশাদার কিলার ৩০ হাজার টাকায় ভাড়া করে রফিকুলকে গলা কেটে খুন করান। এরপর আবার নিজেই বাদী হয়ে রফিকুলের খুনের মামলা করেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা অনেক তদন্ত করেও এই মামলার সুরাহা করতে না পেরে এটি পিবি আই এর নিকট পেশ করে। পরে পিবি আই তদন্ত করে জানতে পারে আসল ঘটনা। এরপর তারা রফিকুলের প্রতিবেশী সাকিব ও ঘাতক এমরানকে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নেয়। সেই রিমান্ডে সাকিব তার খুনের কথা স্বীকার করে এবং ঘটনার বিবরণ দেয়। ঘটনার দিন সাকিব ফোন করে রফিকুলকে ডেকে নেয়। রফিকুল সেখানে গেলে সাকিব ও ইমারান তাকে পাশের একটি লাউ ক্ষেতে নিয়ে যায় এবং সাকিব ও এমরান মিলে তাকে গলা কেটে হত্যা করে। পরে সেই লাশ তারা লাউক্ষতে রেখে সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

পিবি আই কর্মকর্তারা তদন্ত করে জানতে পারে যে, রফিকুলের স্ত্রী পাশের বাড়ির ভাড়াটিয়া প্রতিবেশী সাকিবের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। এদের ব্যাপারে রফিকুল সব জেনে যায় ও স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কলহ ও ঝগড়া হয়। পরে রফিকুলের স্ত্রী সাকিবকে নিয়ে পরিকল্পনা মাফিক এই হত্যা কান্ডটি ঘটায়।

0000

আজকের জনপ্রিয়

0000