আবারো শৈত্য প্রবাহের কবলে পড়েছে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী। গেল কয়েক দিন কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে কিছুটা তাপমাত্রা বাড়লেও মঙ্গলবার ভোর থেকে তাপমাত্রা কমতে শুরু করেছে। আজ সকাল মঙ্গলবার ৯ টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আবহাওয়া অফিস বলছে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্য প্রবাহ প্রবাহিত হচ্ছে উপজেলার উপর দিয়ে।

কুড়িগ্রামের রাজারহাট আবহাওয়া ও কৃষি পর্যবেক্ষক মোফাখখারুল ইসলাম বলেন, তাপমাত্রা আরো কমে আসতে পারে এবং এই শৈত্য প্রবাহ তিন চারদিন থকতে পারে।

এদিকে ঘন কুয়াশা আর উত্তরের হিমেল হাওয়ায় উপজেলার জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ঠাণ্ডায় চরম বিপাকে পড়েছে শ্রমজীবী ও ছিন্নমূল মানুষসহ পশুপাখি। ঘন কুয়াশা ও কনকনে ঠাণ্ডায় বিশেষ কাজ ছাড়া বাইরে বের হচ্ছে না অনেকেই। শীতের কারণে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের নদনদী তীরবর্তী, চরা লসহ প্রান্তিক প্রায় ১০ থেকে ১৫ হাজার মানুষ দুর্ভোগে পড়েছে। সকালের ঘন কুয়াশা দুপুর পর্যন্ত ঝড়তে থাকে বৃষ্টির মতো। ফলে সকাল সকাল কাজে যোগ দেয়া মানুষেরা বেশী বিপাকে পড়েছে। শীতের কারণে চলতি বোরো মৌসুমের কাজ এখনো শুরু হয়নি ফলে বেকার দিন কাটাতে হচ্ছে শ্রমিকদের। এছাড়া দীর্ঘ শীতে বেশীর ভাগ বোরো চারার বৃদ্ধি না হওয়ায় আবাদ শুরু করতে দেরী হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কৃষকেরা।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাহবুবুর রশিদ জানান, চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় ১১ হাজার ৪৫০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। বীজতলা তৈরি করা হয়েছে প্রায় ৪৯৫ হেক্টর জমিতে।