এই ঘটনাটি ঘটে নাটোরের গুরুদাসপুরের এক বিয়ের অনুষ্ঠানে।বউ কে দেখে দৌড়ে পালাইয়ে গেছেন সেখান থেকে কারন আসল কনেকে সরিয়ে দিয়ে ভাবীকে বসানো হয় পাত্রীর স্থানে।

শুক্রবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার বিয়াঘাট ইউনিয়নের যোগেন্দ্রনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে উল্লেখ করা হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, বিয়ের অনুষ্ঠানের খবর পেয়ে সেখানে হাজির হন গুরুদাসপুর সহকারী কমিশনার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান।

এসিল্যান্ডকে দেখেই ভো দৌঁড়। কনের জায়গায় কনের ভাবিকে বসিয়ে শুরু হয় নাটকীয় অভিনয়।

কিন্তু তাতে শেষ রক্ষা হয়নি। কনের ভাবীকে কনে বলে পরিচয় দিলে তাকে এবং কনের ভাইকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায়, যে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিল সেটি ছিল বাল্যবিয়ে। প্রশাসন খবর পেয়ে সেখানে উপস্থিত হয়। কনে বিউটিকে সরিয়ে দিয়ে তার ভাবি শ্রাবনী কনে সেজে কনের জায়গায় বসেছিলেন।