আফগানিস্তানের বিপক্ষে বল টেম্পারিং করায় অভিযুক্ত হয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের উইকেটরক্ষক ক্যাম ব্যাটসম্যান নিকোলাস পুরান। ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে এই কাণ্ডটি করেছেন নিকোলাস। তার বল টেম্পারিং-এর দৃশ্যটি মাঠের আম্পায়ারদের দৃষ্টিতে পড়ে। তাদের অভিযোগেই চার ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন পুরান।

খেলা শেষে মাঠের আম্পায়ার বিসমিল্লাহ সিনওয়ারি ও আহমেদ দুরানি এবং থার্ড আম্পায়ার আহমেদ পাকতিন ও চতুর্থ আম্পায়ার ইজাতুল্লাহ সাফি বল টেম্পারিংয়ের বিষয়টি তুলে ধরেন ম্যাচ রেফারি ক্রিস ব্রডের কাছে। এ থেকেই বিষয়টি সবার সম্মুখে আসে। যার ফলে শাস্তি পেতে হয় নিকোলাসকে।

আইসিসির আচরণবিধির লেভেল থ্রির ২.১৪ অনুচ্ছেদে বলের আকৃতি পরিবর্তনে শাস্তির বিষয়টি উল্লেখ আছে। সেই আইনে ম্যাচ রেফারি ক্রিস ব্রড এই শাস্তি আরোপ করেন। অভিযুক্ত নিকোলাস পুরান শাস্তি মেনে নিয়েছেন। তবে পাঁচটি ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হয়েছে তার নামে।

শাস্তি মেনে নিয়ে নিকোলাস পুরান বলেন, ‘আমি স্বীকার করছি, সত্যিই বড় ভুল করে ফেলেছি। এর জন্য আমি আমার সতীর্থ, সমর্থক এবং আফগানিস্তান দলের কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করছি। আইসিসির দেওয়া শাস্তি আমি মেনে নিয়েছি। সবাইকে আশ্বস্ত করতে চাই যে, এমনটা আর ঘটবে না। তবে আমি মাঠে ফিরতে চাই।’

নিষেধাজ্ঞার ফলে নিকোলাস আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ এবং ভারতের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচটি খেলতে পারবেন না। তার অনুপস্থিতিতে উইকেটের পেছনে দেখা যেতে পারে দিনেশ রামদিনকে