আদিত্য পাঞ্চোলি এবং কঙ্গনা রানাওতের সম্পর্কের কথা কারও অজানা নয়। ক্যারিয়ারের প্রথম দিকেই আদিত্যের সঙ্গে নাম জড়ায় ‘কুইন’খ্যাত কঙ্গনার। যার ফলে পাঞ্চোলি পরিবারে প্রায় সুখ-শান্তি চলে গিয়েছিল। এমনকি বাবার সঙ্গে কঙ্গনার নামও শুনতে পছন্দ করতেন না পাঞ্চোলিপুত্র সুরাজ।

তিনি জানিয়েছেন, ছোটবেলায় এই বিষয়গুলো তাকে তাড়া করে বেড়াত। বেশিরভাগ সময়েই তিনি দাদা-দাদির সঙ্গে সময় কাটাতেন বলে জানান। তবে কোনও দিনই বাবার সঙ্গে কঙ্গনার সম্পর্ক নিয়ে কথা বলতে দেখা যায়নি সুরাজকে। এই প্রথমবার এক সাক্ষাৎকারে আদিত্য-কঙ্গনাকে নিয়ে কথা বললেন তিনি।

সুরাজ বলেন, কঙ্গনার সঙ্গে বাবার সম্পর্ক তিনি কোনও দিনও মানতে পারেননি। এমনকি এই বিষয় থেকে নিজেকে দূরে রাখতেই পছন্দ করতেন। তার মতে, এই পুরো বিষয়টি বাবা-মায়ের ব্যক্তিগত ব্যাপার এবং তিনি এই নিয়ে কোনও কথা বলবেন না। ছোটবেলায় বেশিরভাগ সময়েই দাদা-দাদির সঙ্গে কাটিয়েছেন তিনি। অভিনেতার মতে, এই বিষয়গুলো তাকে রীতিমতো তাড়া করে বেড়াত এবং তিনি কিছুটা হলেও হতাশ হয়ে পড়তেন। তাই বাবা আদিত্যর ব্যক্তিগত বিষয়ে কথা বলতে পছন্দ করতেন না। আদিত্য-কঙ্গনার সম্পর্ক নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি বলিউডে। শুরুর দিকে দু’জনেই লিভ-ইনে থাকতেন বলে জানা গেছে। তবে সম্পর্কে থাকাকালীন আদিত্যর বিরুদ্ধে একাধিক বিস্ফোরক অভিযোগও তুলেছেন কঙ্গনা।

অভিনেত্রী অভিযোগ করেন, আদিত্য তাকে মারধর করতেন এবং অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করতেন। তাছাড়াও তার ওপর মানসিক এবং শারীরিক অত্যাচার করা হয়। এমনকি, মুম্বাইয়ের রাস্তায় একদিন গাড়ির মধ্যে অভিনেত্রীকে মারধর করতে শুরু করেন আদিত্য। কোনও রকমে গাড়ি থেকে বেরিয়ে সেখান থেকে চলে যান কঙ্গনা। এক অটোচালক এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন বলে জানান তিনি। তবে অভিনেত্রীর সমস্ত অভিযোগই খারিজ করে দিয়েছেন আদিত্য। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।