আইপিএলে পাঞ্জাবের বিপক্ষে বাজে পারফরম্যান্সের কারণে আনুশকাকে জড়িয়ে বিরাট কোহলির প্রতি ‘অশালীন’ মন্তব্য করেছেন দেশটির জীবন্ত কিংবদন্তি সুনীল গাভাস্কার।

বৃহস্পতিবার রাতে দুবাই স্টেডিয়ামে আইপিএলের ৬ষ্ঠ ম্যাচে এক রানে কোহলি আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যাওয়ার সময় ওই বাজে মন্তব্যটি করেন ধারাভাষ্যকার সুনীল গাভাস্কার।

বিষয়টি নিয়ে ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় চলছে। কোহলিকে গাভাস্কারের এমন মন্তব্যকে মোটেই ভালো চোখে দেখছে না নেটিজেনরা।

ইতিমধ্যে গাভাস্কারকে স্টার ইন্ডিয়ার কমেন্ট্রি প্যানেল থেকে সরিয়ে দেয়ার দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন নেটিজেনরা।

এরইমধ্যে এমন মন্তব্যের জন্য সুনীল গাভাস্কারকে ধুয়ে দিলেন বিরাটপত্মী আনুশকা।

শুক্রবার নিজের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে অনুশকা লিখেন, মিস্টার গাভাস্কারকে আমি জানাতে চাই যে, আপনার ওই মন্তব্যটি ছিল অনেকটা কুরুচিপূর্ণ। কারণ আপনি একজন স্ত্রীকে তার স্বামীর খেলার জন্য দোষারোপ করে এরকম জঘন্য মন্তব্য করছেন। আমি নিশ্চিত যে, বছরের পর বছর ধরে খেলার বিষয়ে মন্তব্য করার সময় আপনি প্রত্যেক ক্রিকেটারের ব্যক্তিগত জীবনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়েছেন। আপনার মনে কি হয় না যে, আমার এবং আমাদের জন্য একইরকম সম্মান দেখানো উচিত? আমি নিশ্চিত যে, গতরাতে আমার স্বামীর পারফরম্যান্স নিয়ে মন্তব্য করার জন্য আপনি আরও অনেক শব্দ এবং বাক্য ব্যবহার করতে পারতেন নাকি আপনার শব্দগুলো তখনই প্রাসঙ্গিক হয়, যখন আমার নাম ব্যবহার করেন?’

আনুশকা আরও লিখেছেন, এটা ২০২০ সাল হলেও আমার জন্য কোনোই পরিবর্তন আনেনি। আমার প্রসঙ্গ শুধু শুধু ক্রিকেট টেনেহিঁচড়ে আনা কবে বন্ধ হবে?

গাভাস্কারের উদ্দেশে আনুশকার আরও লেখেন, ক্রিকেটের মতো এই ভদ্র খেলায় আপনি একজন কিংবদন্তি। এখানে আপনার নাম শীর্ষেই রয়েছে। আর আপনার মতো এমন ব্যক্তিত্ব থেকে এমন মন্তব্য কী করে আশা করা যায়!

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাতের ওই ম্যাচে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কাছে নাস্তানাবুদ হয়েছে কোহলির ব্যাঙ্গালুরু। ৯৭ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরেছে তারা। এমন বাজেভাবে হারের জন্য ব্যাঙ্গালুরু অধিনায়ক কোহলিকে দায়ী করা হচ্ছে। কারণ তার হাতেই পর পর দুইবার জীবন পেয়ে ১৩২ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। ২০৭ রানের বড় টার্গেট ছুড়ে দেয় তারা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে মাত্র একরানে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন কোহলি।

 

কোহলির এমন বাজে পারফরম্যান্সকে বোঝাতে গিয়ে ধারাভাষ্যকার সুনীল গাভাস্কার হিন্দি ভাষায় বলে ওঠেন, ‘ইনহোনে লকডাউন মে বাস আনুশকা কি গেন্দোঁ কি প্র্যাকটিস কি হ্যায়।’ যার বাংলা অর্থ – ‘কোহলি লকডাউনে শুধু আনুশকার বলেই অনুশীলন করেছেন।’

অনেকে বলছেন, লকডাউনের সময় বিরাট কোহলি একটি ভিডিও শেয়ার করেছিলেন, যেখানে দেখা গেছে, বাড়িতে আনুশকা বল করছিলেন এবং বিরাট ব্যাট করছিলেন। সেই ভিডিওর পরিপ্রেক্ষিতে গাভাস্কারের এমন মন্তব্য করেছেন।

যদিও এমনটা মানতে নারাজ বিরুস্কাভক্তরা। তাদের দাবি, এমন বক্তব্য দিয়ে গাভাস্কার সন্তান সম্ভাবা আনুশকার দিকে ইঙ্গিত করেছেন। লকডাউনের মাঝে আনুশকার গর্ভবতী হওয়া নিয়েই গাভাস্কার এই মন্তব্য করেছেন।

গাভাস্কারের এই স্বভাব চরম বিকৃতির পর্যায়ে পড়ে বলে মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ।

অনেকেই লিখেছেন, ক্রিকেটে ব্যাঙ্গালুরু জিতলে বা কোহলি ভালো খেললে তখন কেউ আনুশকা শর্মার নাম বলে না। কিন্তু যখনই এর বিপরীত ঘটে তখনই আনুশকাকে নিয়ে ঠাট্টা মস্করা শুরু হয়ে যায়!


তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, টুইটার, ইন্টাগ্রাম, হিন্দুস্তান টাইমস