ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের বহু কান্নার সাক্ষী মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ব্যাট। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে তিন বলে এক রান প্রয়োজন ছিল বাংলাদেশের। মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ মিলিয়ে এই সহজ সমীকরণটাই সেবার মেলাতে পারেননি। সেই কলঙ্ক মুছল আজ। টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ ভারতের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম জয়টা যখন আসলো তখন উইকেটে ছিলেন মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচটিতে বাংলাদেশের এই রাজসিক জয়ের নায়কই মুশফিকুর রহিম। ভারতের ১৪৮ রানের জবাব দিতে নেমে শেষ দিকে বেশ চাপেই পড়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু সেখান থেকে দলকে বের করে নিয়ে আসেন মুশফিক। ম্যাচে ভারতের অন্যতম সেরা বোলার খলিল আহমেদকে টানা ৪টি চার হাঁকিয়ে বাংলাদেশকে সাত উইকেটের জয় এনে দিয়েছেন এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার।

বাংলাদেশের শুরুটাই অবশ্য ভালোই হয়েছিল। লিটন দাস শুরুতে ঝড়ের আভাস দিয়ে ফিরলেও দ্বিতীয় ও তৃতীয় বড় দুটি জুটি পায় বাংলাদেশ। অভিষিক্ত তরুণ নাঈম হাসানের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ৪৬ রানের জুটি গড়েন সৌম্য সরকার। নাঈম ২৮ বলে ২৬ রানে আউট হলে তৃতীয় উইকেটে ৬০ রান তোলেন মুশফিক-সৌম্য।

তবে এই জুটিতে রান উঠলেও বলও নষ্ট হয় বেশ। ফলে শেষ দিকে বেশ চাপেই পড়ে যায় বাংলাদেশ। মুশফিকুর রহিম ১৯তম ওভারের শেষ চার বলে টানা চারটি চার হাঁকিয়ে এই চাপ কাটিয়ে দুর্দান্তভাবে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেন।

শেষ পর্যন্ত ১৯.৩ ওভারে ৭ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে ফেলে বাংলাদেশ। চারে ব্যাট করতে নামা মুশফিকুর ৪৩ বল খেলে ৮ চার ১ ছয়ে ৬০ রানে অপরাজিত ছিলেন। এর আগে সৌম্য সরকার ৩৯ ও নাঈম হাসান ২৬ রান করেন। দুর্দান্ত খেলে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার জিতে নেন মুশফিক।