ভারতের দক্ষিণী সিনেমার কিংবদন্তি অভিনেতা রজনীকান্ত। অভিনয় দক্ষতায় কোটি কোটি ভক্তের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। এ অভিনেতার সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ‘দরবার’ বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছে। খবরে প্রকাশ ৭০ কোটি রুপি লোকসান হয়েছে সিনেমা ডিস্ট্রিবিউটরদের।

এ কারণে হঠাৎ করেই দরপতন ঘটেছে দক্ষিণী এই সুপারস্টারের। রজনীকান্তের আপকামিং সিনেমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সান পিকচার্স তাঁর পারিশ্রমিক কমিয়ে দেয়ারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ডিএনএ ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সান গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা কালানিথি মারান সম্প্রতি রজনীকান্তের সঙ্গে দেখা করেছেন এবং তার পারিশ্রমিক কমাতে রাজি করিয়েছেন।

সূত্রের তথ্যমতে, গত সপ্তাহে রজনীকান্তের সঙ্গে মারান তাদের নতুন সিনেমার সেটে দেখা করেন। ‘দরবার’ সিনেমার ব্যর্থতার কারণে রজনীকান্তকে পারিশ্রমিক কমানোর জন্য অনুরোধ করেন মারান। এমন সিদ্ধান্তে প্রথমে ভীষণ অবাক হয়েছিলেন রজনীকান্ত। এমনকি সিনেমাটি থেকে সরে আসার ব্যাপারেও প্রস্তুত ছিলেন।

তবে অনেক আলোচনার পর, রজনীকান্ত তার পারিশ্রমিক অর্ধেক কমাতে রাজি হয়েছেন বলে জানা গেছে। ‘দরবার’ সিনেমায় যেখানে এ অভিনেতা ১১৮ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিয়েছিলেন, সেখানে সান পিকচার্স তাকে পারিশ্রমিক হিসেবে ৫৮ কোটি রুপি অফার করেছে। ‘দরবার’ রজনীকান্তের ১৬৭তম সিনেমা।

লায়কা প্রোডাকশনের ব্যানারে নির্মিত এই সিনেমায় ২০০ কোটি রুপি বাজেটের মধ্যে ১১৮ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিয়েছেন রজনীকান্ত। প্রায় দুই দশক পরে এই সিনেমায় পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় দেখা গেছে তাকে। ১৯৯২ সালে মুক্তি পাওয়া ‘পান্দিয়া’ সিনেমায় সর্বশেষ পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন দক্ষিণের এই সুপারস্টার।