পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় যে খাদ্যরসিক ভক্তরা ভালো করেই জানেন। অভিনেত্রী মিথিলার সঙ্গে যখন বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন তখনো মেনুতে ছিল নানান খাবারের চমক। আলোচিত সেই বিয়ের মেনু নিয়ে আলোচনাও কম হয়নি। তবে সৃজিতের মাংসপ্রীতি নিয়েও প্রচলিত আছে অনেক মজাদার গল্প।

সৃজিতের খাওয়া মাংসের তালিকা শুনলে অবাক হওয়া ছাড়া কোনো গতি থাকে না। এক সাক্ষাতকারে সৃজিত জানিয়েছিলেন তিনি কোন কোন মাংস খেয়েছেন। সেই তালিকাটাও বিশাল। জের পাঠকদের সেই তালিকার কথা আরেকবার মনে করিয়ে দেওয়া যাক- সৃজিতের খাওয়া মাংসের তালিকায় রয়েছে, কুমির, রেটেল স্নেক, অ্যালিগেটর, কচ্ছপ, খরগোশ, হরিণ, পায়রা, সাদা ভাল্লুক, ঘোড়া, বাইসন, ওয়াটার বাফেলো, চড়ই পাখি, উটপাখি, কোয়েল, ক্যাঙ্গারু, ব্যাঙ, স্কুইড, অক্টোপাস, হাঙ্গর, উট, জেবরা।

সৃজিত সেই সাক্ষাতকারেই পরিষ্কার জানিয়েছেন, প্রত্যেকটি মাংসই তিনি আইনসম্মতভাবে খেয়েছেন। অর্থাৎ বৈধ উপায়ে বিক্রি করা মাংসই তিনি খেয়েছেন। তবে এত ধরনের মাংস যে তিনি খেয়েছেন তার মধ্যে কোন মাংসটি শ্রেষ্ঠ? জবাবে সৃজিত বলেছেন শূকরের মাংসের কথা।

সৃজিত জানিয়েছেন, এই মাংসগুলো প্রত্যেকটি আইনসম্মতভাবে তিনি খেয়েছেন। অর্থাৎ যে দেশে যে মাংস ‘বৈধ’ সেই দেশেই তিনি খেয়েছেন। তবে সৃজিতের সবচেয়ে পছন্দ শূকরের মাংস। তার ভাষায়, দিনের শেষে শূকরের মাংস থেকে সুস্বাদু কোনো মাংস নেই। এরপরেই তার প্রিয় মাংস তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে কুমির।

তবে সৃজিতের এই শূকরের মাংসপ্রীতি নিয়ে আলোচনাও কম হয়নি। কলকাতার আনোয়ার খান শাহ রোডের ‘হন্ডো’স নামে একটি রেস্টুরেন্টে সৃজিতের শূকরের মাংসপ্রীতি নিয়ে আলাদা একটি প্ল্যাটারই চালু করেছে। রেস্টুরেন্টের ওই প্ল্যাটারের নামই সৃজিত’স প্ল্যাটার। এই প্ল্যাটারে রয়েছে শূকরের মাংস দিয়ে বানানো বিভিন্ন মেনু।

এই মেনুটির মূল্য ধরা হয়েছে ৬৩০ রুপি। প্ল্যাটারের সঙ্গে লেখা আছে একটি কথা, এই প্ল্যাটারটি জনপ্রিয় নির্মাতা সৃজিত মুখার্জির নামে নামকরণ করা হয়েছে। হাস্যজ্জ্বল এ মানুষটির মতোই এই সন্নিবেশিত হয়েছে, পর্ক সালামি, বেকন, হটডগ, পর্ক ককটেইল, আর মায়ো ডিপ। সৃজিত’স প্ল্যাটার রেস্টুরেন্টটির অন্যতম বেস্টসেলিং আইটেম। রেস্টুরেন্টটির ‘মেজর মাস্ট ট্রাই’ অংশেও সবার প্রথমে রয়েছে সৃজিতকে উৎসর্গ করা প্ল্যাটারটির নাম।

সৃজিত খাদ্যকে সবকিছু থেকে আলাদা করে দেখতে চান। এটা মেনেই তিনি খোঁজ করে যাচ্ছেন নতুন নতুন খাবারের।

0000

আজকের জনপ্রিয়

0000