তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর। ধীর গলায় কথা বলতেন। রুগ্ন চেহারার সেই মানুষটি যখন নিজের ইউটিউব চ্যানেলে এসে নিজের হাতে রান্না করতেন, তার আন্তরিকতায় হৃদয় ভরে আসত বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা ফলোয়ারদের। ফলোয়াররা তাকে ‘গ্র্যান্ডপা’ নামেই চেনে। কখনো তার প্রকৃত নাম-ধাম জানার যেন প্রয়োজনই হয়নি কারো। ৭৩ বছরের সেই দাদু গত রবিবার মারা গেছেন। অসহায় করে গেছেন সেইসব অনাথ শিশুদের, যারা তার জন্যই প্রতি সপ্তাহে সুস্বাদু খাবার খেতে পারত।

দাদুর আসল নাম নারায়ন রেড্ডি। ভারতের তেলেঙ্গানার বাসিন্দা নারায়ন চাষাবাদ করেই জীবন কাটিয়েছেন। কিন্তু তার সব সময়ই অনাথ শিশুদের জন্য কিছু করার ইচ্ছা ছিল। অর্থের অভাবে তিনি তেমন কিছুই করে উঠতে পারতেন না।

২০১৭ সালে তিনি প্রথম নিজের স্বপ্ন পূরণের সুযোগ পান। তেলেঙ্গানার কয়েকজন যুবক তার সঙ্গে যুক্ত হন। ইট দিয়ে চুলা বানিয়ে তিনি অনাথাশ্রমের শিশুদের জন্য খাবার তৈরি করতে শুরু করেন।

তার সঙ্গে যোগ দেওয়া ওই যুবকদের প্রেরণায় ২০১৭ সালের আগস্টে ‘গ্র্যান্ডপাজ কিচেন’ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেল খোলেন নারায়ন রেড্ডি। আর তখন থেকে দাদুর জার্নি শুরু।

গর্ত করে তার উপর ইট সাজিয়ে উনুন বানানো হয়। জঙ্গল থেকে কাঠ কেটে আনা, আর তারপর সেই কাঠের টুকরো দিয়ে উনুন ধরানো। এ ভাবেই শুরু হয় গ্র্যান্ডপার রান্না।

কখনো মটন বিরিয়ানি, কথনো পিৎজা, কেক আবার কখনো বার্গার, নুডলস বানিয়ে তিনি অনাথাশ্রমে দিয়ে আসতেন। প্রতি সপ্তাহে অন্তত একবার তিনি রান্না করতেন। বড় কড়াই, হাতা নিয়ে সেই রান্নার পুরো প্রণালীটাই ভিডিও করা হত। তারপর সেটা ইউটিউবে আপলোড করা হত।