পেটে মেদ বা ভুড়ি হওয়া একটি সাধারণ সমস্যা। প্রত্যেকটি মানুষই সাধারণত এই সমস্যায় ভুগে থাকেন। একটু বেশী খেলে বা অনিয়ম তান্ত্রিক খাদ্যাভাসের ফলে শরীরের অন্যান্য অংশের তুলনায় পেটে যেন চর্বি অতিরিক্ত বেড়ে যায়। যার ফলে পেট বড় হয়ে যায়। আর এর ফলে দেখতে খুব বিশ্রী দেখায়। কোন ভাল পোশাক পরলেও পেটের চর্বির জন্য দেখতে খুবই খারাপ লাগে।

অনিয়মতান্ত্রিক খাদ্যাভাস, প্রয়োজনের তুলনায় বেশি খাওয়া, পরিশ্রমের অভাব, ব্যায়াম না করা বা না হাঁটা এরকম নানা কারণে পেটের মেদ বেড়ে যেতে পারে। আসুন জেনে নেই কিভেব এই মেদ কমানো যায়। আর নিয়ম মেনে চললে ১০ দিনের মধ্যেই ফলাফল পাওয়া যাবে।

মিষ্টি জাতীয় খাবার এড়িয়ে যাওয়াঃ যে সকল খাবারে প্রচুর চিনি রয়েছে, সেই সকল খাবার কম করে খাওয়া বা না খাওয়া। চিনি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার বলতে আইসক্রিম, কোল ড্রিংস, চকোলেট, চা, কফি, মিষ্টি এই ধরনের খাবার একেবারেই না খাওয়া। কারণ চিনি বা মিষ্টি জাতীয় খাবারে অতিরিক্ত ফ্রুক্টোজ থাকায় তা লিভার ও পেটে খুব তাড়াতাড়ি চর্বি জমিয়ে ফেলে। যার ফলে ভুড়ি বেড়ে যায়।

কার্বহাইড্রেট জাতীয় খাবার গ্রহণ কমিয়ে ফেলাঃ কার্বহাইড্রেট জাতীয় খাবার বলতে সাধারণত, ভাত, আলু ও রুটিকে বোঝায়। আমরা সাধারণত প্রতিদিনই এই তিনটি খাবার গ্রহণ করে থাকি। কেননা কার্বহাইড্রেট জাতীয় খাবার শরীরের জন্য অনেক জরুরী। কিন্তু এই খাবার অতিরিক্ত গ্রহণ করলে শরীরে কার্বের চাহিদা পূরণ করে তা ফ্যাটে পরিণত করে। যার ফলে কার্ব হাইড্রেট জাতীয় খাবার পরিমাণমত খেতে হবে।

প্রোটিন জাতীয় খাবার বেশী খাওয়াঃ ডিমের সাদা অংশ, মুরগীর ব্রেস্টের মাংস, সয়াবিন, দুধ, মাছ এই সকল খাবারে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন রয়েছে। এই সকল খাবার অতিরিক্ত গ্রহণ করলে শরীরের চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি তা ফ্যাট কমাতে সাহায্য করবে। কারণ এই সকল খাবারে ফ্যাটের পরিমাণ একেবারেই নেই।

সামান্য গরম পানির সাথে লেবুর রস খাওয়াঃ ১ পোয়া গরম পানিতে ১ টি লেবুর পুরাটা রস বের করে প্রতিদিন সকালে খেলে পেটের মেদ খুব দ্রুত গায়েব হয়ে যায়। কারণ লেবুতে আছে অ্যাান্টি অক্সিডেন্ট, যা ফ্যাট কমাতে খুব বেশি কার্যকর।

ফাইবার জাতীয় খাবার বেশি খাওয়াঃ ওটস, শাক-সবজি, বিভিন্ন ফলমূল নিয়মিত প্রতিদিন গ্রহণ করলে শরীর যেমন থাকবে ফিট ও স্বাস্থ্যবান ঠিক তেমনি শরীরে নতুন করে ফ্যাট জমবে না।

প্রতিদিন ৩০ মিনিট হাঁটাঃ প্রতিদিন নিয়ম করে ৩০ মিনিট হাটলে শরীরে আর অতিরিক্ত চর্বি কমবে না।

প্রতিদিন ৩০ মিনিট পেটের ব্যায়াম করাঃ ইউটিউবে বিভিন্ন পেটের ব্যায়াম দেখানো হয়েছে। এগুলো প্রতিদিন নিয়ম করে ৩০ মিনিট ধরে করলে পেটের ভুড়ি এমনিতেই গায়েব হয়ে যাবে।

0000

আজকের জনপ্রিয়

0000