পেটের ভুঁড়ির জন্য শুধু যে আপনাকে বেমানান দেখায় তা নয় বরং ডায়াবেটিস এবং হৃদরোগের মতো জটিল রোগ গুলোকে আপনার শরীরে বাসা বাধতে সাহায্য করে। মহিলাদের পেটের এই চর্বির জন্য অনেক সময় বাচ্চা না হওয়া সংক্রান্ত জটিলতা তৈরি হয়।

শুধুমাত্র মোটা মানুষের ভুঁড়ি থাকে না কিন্তু নয়, অনেকে ক্ষেত্রে এমন দেখা যায় যে সারা শরীরে মেদ নেই কিন্তু ভুঁড়ি রয়েছে। সারাদিন বসে বসে কাজ করার ফলে আমাদের কায়িক পরিশ্রম কম হয়, যে কারণে অনেকেরই পেটে চর্বি জমতে শুরু করে পরে যা ভুঁড়িতে পরিনত হয়।

তবে খুব সহজে আপনি আপনার এই পেটের ভুঁড়ি বা চর্বি কমিয়ে ফেলতে পারবেন ৪ টি সহজ উপায়ে। শুরু করার আগে একটি কথা মাথায় রাখবেন যে, এই ৪ টি উপায় আপনাকে নিয়মিত করতে থাকতে হবে। এমনটি করা যাবে না যে, একটি করছেন আর অন্যটি করছেন না তাহলে হবে না।

১. সর্ব প্রথম আপনাকে যা করতে তা হল আপনাকে তোকমার শরবত খেতে হবে প্রতিদিন সকালে। এরজন্য আপনাকে তোকমা রাতে পানি দিয়ে ভিজিয়ে রাখতে হবে।

এক গ্লাস পানিতে এক চামচ তোকমা সারারাত পানি দিয়ে ভিজিয়ে রেখে সকালে এক চামচ লেবুর রস ও হাফ চামচ মধু মিশিয়ে খালি পেটে খেতে হবে। এতে শুধু যে আপনার ভুঁড়ি কমবে তা নয়, এটি আপনার সারা শরীরের মেদ ঝরিয়ে ফেলবে।

২.তিশির বীজ সম্পর্কে কমবেশি আমরা সবাই জানি কিন্তু এইটি যে পেটের চর্বি কমাতে সাহায্য করে তা কিন্তু অনেকেরই অজানা। তিশি পেটের চর্বি কমাতে ম্যাজিকের মত কাজ করে।

আপনি তিশির বীজ কে চাইলে খালি মুখে খেতে পারেন বা ভেজে গুড়া করে এক চামচ গুড়া পানিতে মিশিয়ে খেতে পারেন। এটি আপনি সারাদিনে যে কোন সময় খেতে পারেন।

৩.তারপর আপনাকে যা করতে হবে তা হল চিনি খাওয়া বন্ধ করতে হবে পুরপুরি ভাবে। আপনি কোন ভাবেই চিনি বা চিনি জাতীয় কোন খাবার খাবেন না।

আমাদের সবার কম বেশি সারাদিনে কমপক্ষে ২ বা ৩ কাপ চা না হলে চলে না, এখানে আপনাকে চা খেতে মানা করা হচ্ছে না কিন্তু তা আপনাকে খেতে হবে চিনি ছাড়া। আপনি চায়ে অল্প মধু দিয়েও খেতে পারেন।

৪.আর একটি কাজ আপনাকে করতে হবে তা হল, আপনাকে ভাজা পোড়া ও তেল চর্বি জাতিয় খাবার খাওয়া বন্ধ করতে হবে।

১০ দিন নিয়মিত করতে থাকুন, ফলাফলে আপনি নিজেই অবাক হয়ে যাবেন।

সুত্র – হেলথ লাইন।

0000

আজকের জনপ্রিয়

0000