সন্তানের জন্ম দিতে পারবেন পুরুষরাও

2 second read
0
0
15

 সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে থাকার সুখই হয়তো জীবনের পরম প্রাপ্তি। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে জীবনের সে স্বাদ তারিয়ে উপভোগ করেন। তবে পুরুষরা বাবা হন বটে। কিন্তু সন্তান জন্ম দেওয়ার ক্ষেত্রে তাঁরা অক্ষম। ফলত নারীরা বা মায়েরা সন্তান জন্মের যে জার্নি, যে যন্ত্রণা ও আনন্দ যুগপৎ অনুভব করেন, পুরুষের কাছে তা অধরা। তবে সে দিন বোধহয় শেষ হতে চলেছে। চিকিৎসা বিজ্ঞান বলছে, এবার সন্তানের জন্ম দিতে পারবেন পুরুষরাও।

কী করে খুলল এই সম্ভাবনার দুয়ার? পদ্ধতির নাম জরায়ু প্রতিস্থাপন। এখনও পর্যন্ত মহিলাদের দেহেই তা করা হয়েছে। সাফল্যও মিলেছে। আর তারপরই নতুন ভাবনা ভাবিয়ে তুলেছে চিকিৎসকদের। তাঁদের আশা, যদি মহিলা শরীরে জরায়ু প্রতিস্থাপন করা সম্ভব হয়, তবে পুরুষ শরীরের ক্ষেত্রেও তা অসম্ভব নয়। ফলত পুরুষরাও সন্তানের জন্ম দিতে পারবেন।

 

চিকিৎসকমহলের রিপোর্ট মোতাবেক, যে সমস্ত রূপান্তরকামীরা জেন্ডার রিঅ্যাসাইনমেন্ট সার্জারি করাচ্ছেন, তাঁরা জরায়ু প্রতিস্থাপনও করতে পারেন। এবং সেক্ষেত্রে সন্তান ধারণ সম্ভব। তবে পদ্ধতি জটিল তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কেউ কেউ ধন্দেও আছেন, যে আদৌ তা করা যাবে কিনা! পুরুষ ও নারীর পেলভিসের গঠন একরকম হয় না। সুতরাং জরায়ু প্রতিস্থাপন কতটা কার্যকরী হবে, তা নিয়ে দ্বিধাভক্ত চিকিৎসকমহল। কোনও কোনও মহলের অবশ্য মত, সন্তানধারণ সম্ভব হলে সিজারের সাহায্যে সন্তান জন্ম দেওয়া অসম্ভব কিছু নয়। সেক্ষেত্রে যে পুরুষরা মাতৃত্ব চান, তাঁরা রূপান্তরের মাধ্যমে এই জটিল পদ্ধতির দ্বারস্থ হতে পারেন। আপাতত এই সব কিছু ভাবনা-চিন্তার স্তরেই রয়েছে। তবে বিজ্ঞানের অগ্রগতি হয়তো এই ভাবনাকেও বাস্তবে রূপায়িত করতে বিশেষ দেরি করবে না।

মন্তব্য করুন

Comments are closed.