ওজন কম রাখতে মরিয়া এই মেয়ের হাল দেখুন

0 second read
0
0
67

অ্যানোরেক্সিয়া রোগ কতটা ভয়ংকর হতে পারে তার জ্বলন্ত উদাহরণ জুরিখের জুলিয়া জ্যানসেন। ওজন বেড়ে যাওয়ার ভয় থেকে খাওয়া বন্ধ বন্ধ করে দেওয়ার ডাক্তারি নাম অ্যানোরেক্সিয়া। জুলিয়াও এই রোগে আক্রান্ত হয় মাত্র ১৩ বছর বয়সে। ১৬ বছর বয়সে তা ওঠে চরমে। সুইত্জােরল্যান্ডের চিকিত্সসকরাও জানান, তাঁদের দেখা অন্যতম খারাপ অ্যানোরেক্সিয়ার নজির ছিল এটা। জুলিয়ার ওজন এতটাই কমে গিয়েছিল যে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। সে সময় তাঁর ওজন ছিল মাত্র ৩৫ কেজি। শুধু রোগা হওয়া নয়, অপুষ্টির কারণে তাঁর মাথা থেকে গোছা গোছা চুল উঠে যাচ্ছিল। প্রায় ন্যাড়া হয়ে গিয়েছিলেন জুলিয়া। রক্তচাপ এতটাই কমে গিয়েছিল যে দিনের মধ্যে বেশ কয়েকবার তিনি অজ্ঞান হয়ে যেতেন। জুলিয়া বলেন, ‘ওজন এক গ্রাম বাড়লেও আমি প্যানিক করতে শুরু করেছিলাম। তাই সবাই ঘমিয়ে পড়লে রাত ২টোর সময় হাঁটতে বেরিয়ে পড়তাম। পোশাক থেকে মাথার চুলের মধ্যে খাবার লুকিয়ে বাড়ির বাইরে বেরিয়ে যেতাম। কেউ জিজ্ঞাসা করলে বলতাম খেয়েছি। পরিস্থিতি এমন জায়গায় গিয়েছিল, যে কোনও দিন মারা যেতে পারতাম। ভেবেছিলাম ঘুমের মধ্যেই হয়তো এক দিন মরে পড়ে থাকব। ২০১৪ সালে চিকিত্স করা আমায় পরিষ্কার বলেন, খাবার না খেলে ক্রিসমাস আর দেখা হবে না। এই রোগ আমার জীবনের সব কিছু কেড়ে নিয়েছে।’ প্রায় তিন বছরের ক্রমাগত চিকিত্সাএয় ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন জুলিয়া।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *