জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তোসি’মিতসু মোতেগি জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস মোকা’বেলার জন্য বিনা পয়সায় ৪৩টি দেশে অ্যাভিগন ওষুধ (যা ফেভিপিরাভির নামে পরিচিত) পাঠানো হবে।

ছয় বছর আগে ফেভিপিরাভির নামক ওষু’ধটি তৈরি করা হয়। এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। তার পরে’ও ওষুধটি সেভাবে ব্যবহার হয়নি। 

তবে সম্প্রতি চীনের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বি’ষয়ক মন্ত্রণালয় জানায়, অ্যাভিগন ওষুধটি করোনা’ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের ওপর প্রয়োগের ফলে ইতিবাচক ফল পাওয়া গেছে। গুরুতর অবস্থায় থাকা রোগীরাও দ্রুত সেরে উঠেছেন ফেভিপিরাভির সেবনের ফলে।

চীনের চিকিৎসকরাই আবিষ্কার করেন, অ্যাভি’গনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সেরে ওঠার বিষয়টি।

এরপর মার্চে ৮০ জন করোনা আক্রা’ন্তের ওপর ওষুধটির পরীক্ষা শুরু হয় জাপানে। অ্যাভিগন ব্যবহা’রের পর ওইসব রোগীদের শরীরে এখন আর করোনাভাইরাসের উপসর্গ নেই।

জানা গেছে, জাপানে বর্তমানে করোনাভা’ইরাসে আক্রান্ত ২০ লাখ রোগীকে চিকিৎসা দেওয়ার মতো অ্যাভিগন প্রস্তু’ত রয়েছে।

সূত্র : নিউজ ডট এএম