আফ্রিকার দেশ সুদানে নারীর খৎনাকে অপরাধ হিসেবে ঘো’ষণা করা হয়েছে। এখন থেকে নারীকে খৎনা ক’রানো হলে তিন বছরের কারাদণ্ড ও জরিমানার আদায় করা হবে জানি’য়েছে সুদান সরকার। এদিকে সুদা’ন সরকারের এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে নারী অধি;কার নিয়ে কাজ করা আফ্রিকার সংগঠনগুলো।

জাতিসংঘের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতি’বেদনে বলা হয়, সুদানে ১০ জনের মধ্যে ৯ জন না’রীকেই খৎনা করানো হয়। জানা গেছে, গত ২২ এপ্রিল সুদান সরকার নারী’দের খৎনা নিয়ে আইন সংশোধন করে শাস্তির বিধানে অনুমোদন দেয়।

এ বিষয়ে মানবাধিকার সংস্থা ইকু’য়ালিটি নাউ’র আফ্রিকা অঞ্চলের পরিচালক ফাইজা মোহামেদ বলেন, বিশ্বে সবচেয়ে বেশি নারী খৎনা সুদানে হয়। নারীদেরকে এই নির্যাত’ন থেকে রক্ষার জন্য শাস্তি দিতে হবে।

জাতিসংঘের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, আফ্রিকা এ’বং মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে প্রায় ২০ কোটি নারীকে খৎনা ক’রানো হয়েছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা ব’লছেন, খৎনা করানো হলে নারীদের মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। এছাড়াও খৎনার কারণে না’রীরা বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগতে পারেন ।