বন্ধ স্কুলে বিশেষ ক্লাসের নাম করে কিশোরী ছাত্রীর শরীর ছিঁড়ে খেলেন খোদ শিক্ষক ৷ গত মার্চ মাসে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটলেও সবে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ ঘটনাটি ভারতের কেরলের কুন্নুরের ৷

ধর্ষিতা ছাত্রী জানিয়েছে স্কুল বন্ধ থাকলেও শনিবার বিশেষ ক্লাসের নাম করে শিক্ষক তাঁকে ডেকে পাঠান ৷ ফাঁকা স্কুলে এনএসএস ক্লাস আছে বলে সেই ক্লাস ফোরের ছাত্রীকে ডেকে পাঠানো হয়েছিল ৷ এরপর সেই ছাত্রীকে ফাঁকা স্কুলের বাথরুমে নিয়ে গিয়ে তাকে রেপ করে অভিযুক্ত শিক্ষক ৷ সেখানে তাকে যৌনহেনস্তাও করা হয় ৷

এই ঘটনার অভিযোগ প্রাথমিকভাবে করা হয় থালাসারি ডেপুটি সুপারিনটেন্ডট অফ পুলিশের কাছে ৷ কারণ যাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ সেই শিক্ষক আবার সেখানের পঞ্চায়েত কমিটির বিজেপি প্রেসিডেন্ট ৷

অভিযোগ করার পর থেকেই ধর্ষিতা মেয়েটির পরিবারকে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল অভিযোগ ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য ৷ কুনিয়ালি পদ্মরাজন যে মেয়েটিকে রেপ করেছেন তা মেডিক্যাল পরীক্ষায় প্রমাণিতও। সেই মেয়েটির শরীরে নির্যাতনের চিহ্ন পাওয়া গেছে৷ ধর্ষণে অভিযুক্ত শিক্ষকে সাময়িক ভাবে ইতোমধ্যেই স্কুল থেকে বরখাস্ত করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ ৷ অভিযুক্তকে পুলিশ গ্রেফতারও করেছে ৷