ভারতে করোনাভাইরাসে ২০ হাজার ১১১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। আর মারা গেছেন ৬৪৫ জন। আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আরও এক হাজার ৩৮৩ জনের শরীরে প্রাণঘাতী রোগটির সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

আনন্দবাজারপত্রিকা ও এনডিটিভির খবর বলছে, দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে এখন মোট করোনা আক্রান্ত ১৯ হাজার ৯৮৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬৪০ জনের।

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস রুখতে ভারতে দ্বিতীয় দফায় লকডাউন চলছে। যদিও তা গত সোমবার থেকে কিছু ক্ষেত্রে শিথিল করা হয়েছে।

দেশটিতে করোনার সবচেয়ে ভয়াবহ চিত্র ফুটে উঠেছে মহারাষ্ট্রে। সেখানে পাঁচ হাজার ২১৮ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ২৫১ জনের।

এর পরেই রয়েছে গুজরাট; সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ১৭৮ জন। তৃতীয় স্থানে রয়েছে দিল্লি; সেখানে সংক্রমণের কবলে পড়েছেন দুই হাজার ১৫৬ জন।

এ ছাড়া মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান ও তামিলনাড়ুতেও করোনা ছড়িয়ে পড়েছে। এক হাজার ২৯৪ জন সংক্রমিত হয়েছেন উত্তরপ্রদেশে। তেলঙ্গানায় করোনা আক্রান্ত ৯২৮ জন।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, এ রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪২৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। নতুন করে সংক্রমণ ধরা পড়েছে কেরালাতেও। এখন সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা হয়েছে ৪২৭ জন। সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের করোনা ধরা পড়েছে।

ভারতের সর্বত্র করোনা ছড়িয়ে পড়লেও ব্যতিক্রমী কেবল সিকিম। সেখানে এখনও পর্যন্ত একজনও করোনা আক্রান্ত ধরা পড়েনি। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ৮৭০ জন করোনা আক্রান্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন।