মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ জেসিয়া ইসলাম

নেটিজেনরা বিভিন্ন সময় তাকে তাকে

হৃদয় রক্তাক্ত হয়েছে তবুও কিছু বলেননি।

তবে এবার তিনি মুখ খুললেন। 

আকস্মিকভাবে জেসিয়া ইসলামের

ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ভেসে ওঠে ‘রিমেম্বারিং’ শব্দটি।

তার ওপরে কিছু বেগুনি ফুল।

যার অর্থ এই ফেসবুক অ্যাকাউন্টের মালিক পরলোকে।

দ্রুত জেসিয়ার মৃত্যুর খবর সোশ্যাল

মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটোফরমে ছড়িয়ে পড়ে।

তিনি নিজেই ফেসবুক লাইভে এসে অবশেষে

সকলের ভুল ভাঙলেন যে, তিনি মারা যাননি।

তিনি দিব্যি বেঁচে আছেন।

তবে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

জেসিয়া বলেন, আপনারা বিভিন্ন সময়

আমার সমালোচনা করেছেন আমি কিছুই বলিনি।

আপনারা বলেছেন আমি দেখতে খারাপ

আমি কিছু বলিনি, আপনারা বলেছেন

আমার দাঁত ভালো না, আমি কিছুই বলিনি।

 তাই বলে মানুষের মৃত্যু নিয়ে ইয়ার্কি?  

জেসিয়া বলেন, আমি ঘুম থেকে থেকে উঠে ফোন হাতে

নিয়ে দেখি আমার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের এই অবস্থা।

তখন আমার মনের অবস্থা কী যে খারাপ হয়েছে।

জেসিয়া বলেন, ‘কে বা কারা আমার আইডিটিতে রিপোর্ট করেছিল।

সে কারণে এমন বাজে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

গত দু’দিনে আমার আত্মীয়-বন্ধুরা খুব ভয়ে দিন কাটিয়েছেন।

এই বাংলাদেশি সুন্দরী বলেন, যারা এই নিষ্ঠুর রসিকতা করেছেন তাদের অনুরোধ করছি ভবিষ্যতে এই ধরনের কোনো কিছু করতে আসবেন না।

বুলিং কখনোই মজা হতে পারে না। জেসিয়া ইসলাম সুন্দরী প্রতিযোগিতা মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন। চীনের সানাইয়া শহরে অনুষ্ঠেয় ৬৭তম মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের হয়ে অংশগ্রহণ করেন তিনি।