কুকুরের সঙ্গে যৌনাচারণের অভিযোগ উঠেছে এক নারীর বিরুদ্ধে। তবে ৪১ বছর বয়সী সারাহ মেরেডিথকে কারাগারে না পাঠিয়ে সংশোধনাগারে রাখতে বলেছেন বিচারক।

যদিও ওই নারীর দাবি, কুকুরের সঙ্গে যৌনাচারণে তাকে বাধ্য করা হয়েছে। সে কারণে বিচারক মনে করেন, ওই নারীও ভুক্তভোগী হয়েছেন। তার মানসিক চিকিৎসা প্রয়োজন।

যুক্তরাজ্যের ওয়্যাররাল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট থেকে জানানো হয়েছে, ওই প্রাণীর সঙ্গে অসভ্যতা করা হয়েছে। কুকুরের মালিক এ ঘটনার বিচার চেয়েছেন।

কুকুরের মালিকের কাছে ওই ঘটনার ভিডিও রয়েছে। পুলিশকে সেই ভিডিও তিনি দেখিয়েছেন। তার পোষা প্রাণীকে নিয়ে পর্নোগ্রাফি বানানোর অভিযোগ করেছেন তিনি।

ওই কুকুরের সঙ্গে দু’বার অসভ্যতার ভিডিও রয়েছে। দুই ভিডিওতেই ওই নারীকে দেখা যায়। ওই নারী তার মাকে শুধু বলেছেন, তিনি অত্যন্ত খারাপ কিছু করেছেন; যার জন্য মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন। তবে, তিনি কী করেছেন, সে ব্যাপারে মায়ের কাছে কিছুই বলেননি।

ওই নারীর দাবি, দু’জন ব্যক্তি তাকে জোরপূর্বক এ কাজ করিয়েছে। অন্যথায় প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছিল। তবে, ওই ঘটনার ভিডিও রয়েছে কিনা, সে ব্যাপারে তিনি জানতেন না। 

তিনি আরো বলেন, কুকুরের সঙ্গে এ ধরনের ঘটনার জন্য অনুতপ্ত। এজন্য বিচার মেনে নেওয়ার কথা জানান তিনি। সব বিবেচনা করে তাকে সংশোধনাগারে পাঠান বিচারক।

সূত্র : মিরর

0000

আজকের জনপ্রিয়

0000