বাংলাদেশসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে শিথিল হচ্ছে লকডাউন। তবে লকডাউন শিথিল হলে বা লকডাউন তুলে দিলেও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমে গেছে এমন ভাবনা মোটেও সঠিক নয়।

কারণ এই ভাইরাসের এখনও যেহেতু কোনো ওষুধ বা প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি, তাই বাঁচার একমাত্র উপায় হচ্ছে সচেতন হওয়া ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুযায়ী, লকডাউন শেষ হওয়া মানেই সব কিছু স্বাভাবিক হয়ে গেছে এমন নয়। সব কিছু স্বাভাবিক হতে আরও অনেক সময় লাগতে পারে। তাই করোনার প্রতিষেধক বের না হওয়া পর্যন্ত নিজের এবং পরিবারের সুরক্ষার জন্য কিছু বিষয় মেনে চলা জরুরি।

আসুন জেনে নিই যেসব নিয়ম মেনে চলবেন-

লকডাউন ওঠার পরও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলুন। হাটবাজার থেকে শুরু করে সব ধরনের জনবহুল এলাকা থেকে দূরে থাকতে হবে।

পারিবারিক অনুষ্ঠান তো নয়ই, অন্যের বাড়ির অনুষ্ঠানে যাওয়াও বন্ধ করুন। বিয়ে, জন্মদিন- এ ধরনের ঘরোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করবেন না।

বারবার সাবান দিয়ে ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে হাত ধুতে হবে।

বাইরে বের হলেই মাস্ক ব্যবহার করুন।

লকডাউন উঠে গেলেই ভ্রমণ করবেন না। মনে রাখবেন শুধু আমাদের দেশেই নয়, সারাবিশ্বে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে এ ভাইরাস।

পার্ক ও সিনেমা হলো এড়িয়ে চলুন।