নভেল করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে তছনছ হয়ে গেছে পুরো দুনিয়া। দেশে দেশে চলছে লকডাউন। মারণ এই ভাইরাসের ছোবলে এরই মধ্যে প্রায় দুই লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ২৭ লাখ। অথচ তারা দু’জন জানতেনই না পৃথিবীতে করোনাভাইরাস নামে কিছু আছে!

চাকরি ছেড়ে বিশ্বভ্রমণে বেরিয়েছিলেন এলিনা ম্যানিহেটি এবং রায়ান ওসবার্ন নামের এক দম্পতি। সম্প্রতি তারা ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের একটি ডকে তাদের ছোট্ট নৌকাটি ভেড়ানোর চেষ্টা করেন, তখনই তারা জানতে পারেন মহামারি করোনাভাইরাস সম্পর্কে। এর আগ পর্যন্ত ভাইরাসটি সম্পর্কে তাদের কোনো ধারণাও ছিল না।

ম্যানচেস্টারে বসবাসকারী এই দম্পতি তাদের পরিবারের সঙ্গে এ সময়ে কোন যোগাযোগ রাখেননি এবং পরিবারকে বলে দিয়েছিলেন তারা যাত্রার সময় কোনো ‘খারাপ সংবাদ’ পেতে চান না।

এলিনা- মূলত উত্তর ইতালির লম্বার্ডি থেকে আসা, করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ অঞ্চলগুলোর মধ্যে লম্বার্ডি অন্যতম। তিনি বিবিসিকে বলেছেন, ‘ফেব্রুয়ারিতে আমরা শুনেছিলাম চীনে একটি ভাইরাস রয়েছে, তবে আমাদের কাছে পৌঁছানোর সময় পর্যন্ত আমরা সীমিত তথ্য পেয়েছি। ২৫ দিনের মধ্যে ভাইরাসটি নির্মূল হয়ে যাবে এবং এটি ক্যারিবিয়ান অঞ্চলে পৌঁছুবে না বলে শুনেছিলাম। তবে আমরা যখন ক্যারিবিয় উপকূলে পৌঁছেছিলাম তখন বুঝতে পেরেছিলাম যে, এটি শেষ হয়নি এবং পুরো বিশ্ব সংক্রামিত হয়েছে।’

এই দম্পতি ২০১৭ সালে তাদের চাকরি ছেড়ে দিয়ে বিশ্বভ্রমণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। ফেব্রুয়ারিতে তারা আটলান্টিক মহাসাগর থেকে যাত্রা শুরু করেছিল এবং ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জ থেকে ক্যারিবিয়ান যাত্রা করার জন্য একটি নৌকা কিনেছিলেন। করোনাভাইরাস সম্পর্কে তারা খুব কমই জানতেন, মারাত্মক ভাইরাসটি দ্রুত বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছিল। তবে ২৫ দিনের সমুদ্র ভ্রমণে বাইরের বিশ্বের সঙ্গে সামান্যতম যোগাযোগ না থাকায় এলিনা এবং রায়ানের এ সম্পর্কে কোনো ধারণা ছিল না।

সূত্র- মেট্রো ইউকে।