যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের দুইটি বিড়ালের শরীরে কভিড-১৯ এর জীবাণু পাওয়া গেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন করোনা ছড়ানোর ক্ষেত্রে পোষা প্রাণীর ভূমিকার এখন পর্যন্ত কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

দুইটি বিড়ালই নিউ ইয়র্কের। দুজনের লক্ষণ মাঝারি ধরণের এবং তারা পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মার্কিন ডিজিজ কন্ট্রোল প্রিভেন্টেশন এবং মার্কিন ডিপার্টমেন্ট অফ এগ্রিকালচার এক যৌথ বিবৃতিতে জানায়, এই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রে পোষা প্রাণী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

লক্ষণ দেখা দেওয়ার পর পরীক্ষা করে দেখা দেয় করোনা পজেটিভ। সিংহ এবং বাঘের পর এবার তালিকায় যোগ হলো বিড়ালের নাম। প্রথম ‍বিড়ালটির হালকা লক্ষণ প্রকাশ পাওয়ার পর তার টেস্ট করানো হয়। তবে ওই বাড়ির কেউ করোনা আক্রান্ত নন। এদিকে দ্বিতীয় বিড়ালটির বাড়ির একজন করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। তবে এই বিড়ালটির কোন লক্ষণ প্রকাশ পায়নি।

এক্ষেত্রে বিড়াল এবং কুকুরকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলছে মার্কিন ডিজিজ কন্ট্রোল প্রিভেন্টেশন। সেই সাথে তারা যেনো বাড়ির বাইরে যেতে না পারে সে বিষয়ে নজরদারি রাখতে হবে। যে বাড়িতে পোষা প্রাণী আছে সেখানে যদি কেউ করোনা আক্রান্ত হয় তবে যেনো সে বাদে বাড়ির অন্য কেউ পোষা প্রাণীর সংশর্স্পে আসে। আর তা যদি সম্ভব না হয় তবে কাপড় দিয়ে মুখ ঢেকে সংশর্স্পে আসা উচিত। তবে এক্ষেত্রে বারবার হাত ধুতে হবে।