ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলের শাখাইতি গ্রামের মানুষের ওপর প্রতিশোধ নিতে পাঁচটি নলকূপে বিষ ঢেলে দিলেন এক নারী। এতে গ্রামের সেই পাঁচ নলকূপের পানি পান থেকে বিরত রয়েছেন গ্রামবাসী। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

শাখাইতি গ্রামের ইউপি সদস্য সুমন মুন্সি বলেন, গ্রামের প্রবাসী অহেদ মিয়ার স্ত্রী আনেছা বেগম ও তার ছেলে জীবন মিয়া শাখাইতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠের নলকূপ ও গ্রামের নজরুল মিয়ার বাড়ি, শামসু মিয়ার বাড়ি, রমিজ মিয়ার বাড়ি ও রিপন মিয়ার বাড়ির নলকূপে বিষ ঢেলে দেয়।

এসময় নজরুল মিয়ার স্ত্রী নলকূপে বিষ ঢালার দৃশ্য দেখে চিৎকার করলে গ্রামবাসী বিষসহ মা ও ছেলেকে আটক করে পুলিশে সর্পদ করে।

পানিশ্বর ইউপি চেয়ারম্যান দ্বীন ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গ্রামের লোকদের ওপর প্রতিশোধ নিতেই আনেছা বেগম নামে ওই নারী এ কাজ করে থাকতে পারেন।

কারণ হিসেবে ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, কিছুদিন আগে এই নারী নিজের বসতঘরে মাটি দিয়ে কবর বানিয়ে সেটাকে গায়েবি কবর প্রচার করে লোকসমাগম করেন। অনেকে সেই কবরে মোমবাতি, নগদ টাকা ফেলে সেজদা দিতে শুরু করে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে গ্রামের লোকদের সহায়তায় সেই কথিত অলৌকিক কবর ভেঙে দেয়।