ভারতে লকডাউনের মধ্যেও করো’না আক্রা’ন্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এমন প’রিস্থিতিতে সহ’জ উপায়ে বাড়িতে বসেই করো’না পরীক্ষা পদ্ধতি বলে দিয়েছেন তিনি। সেই স’ঙ্গে বাড়িতে বসে করো’না দূ’র করার ওষুধও দিয়ে দিলেন।

হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের মতো কোনো ওষুধ নয়। সেই ওষুধ হলো রান্নাঘরে ঈষত্‍ লালচে, আপাত নিরীহ সরিষার তেল। নাকের ছিদ্রে দু’ফোঁটা দিলেই কাজ শেষ। ম’রবে করো’না ভা’ই’রাস।

করো’না প’রিস্থিতি নিয়ে একটি সর্বভা’রতীয় সংবাদমাধ্যমের আয়োজিত আলোচনাসভায় অংশ নিয়েছিলেন রাম’দেব। সেখানে তিনি দা’বি করেন, বয়স্করা, বিশেষ করে যাদের হাইপার টেনশন ও হার্টের স’মস্যা রয়েছে, তারা যদি ৩০ সেকেন্ড নিঃশ্বা’স ব’ন্ধ করে থাকতে পারেন, তবে বুঝে নিতে হবে তাদের শ’রীরে করো’না নেই। একইভাবে, কম বয়সীদের ক্ষেত্রে ১ মিনিট শ্বা’স ব’ন্ধ রেখে এই পরীক্ষা চালানো যেতে পারে।

এ পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। এরপর তিনি বলেন বলেন, ‘যোগের পাশাপাশি নাকের ছিদ্রে দু’ফোঁটা সরিষার তেল দিলে, শ্বা’সনলিতে থাকা করো’না ভা’ই’রাস পে’টে চলে যাবে। আর সেখানে অ্যাসিডে জী’বাণুগুলো মা’রা পড়বে।’

বিশ্বজুড়ে আত’ঙ্ক সৃষ্টি করেছে করো’না ভা’ই’রাস। লাফিয়ে বাড়ছে আক্রা’ন্তের সংখ্যা। ম’রিয়া হয়ে এই মা’রণ রো’গের প্রতিষেধক খুঁজছেন বিজ্ঞানীরা। এহেন সময়ে একের পর এক আজব ও অবৈজ্ঞানিক থিওরি দিয়ে যাচ্ছেন অনেকেই।

সেই তালিকায় রয়েছে মা’র্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রা’ম্পের নামও। ট্রা’ম্পের মতে, অ’তিবেগুনি রশ্মি ও ঘরো‌য়াভাবে ব্যবহৃত জী’বাণুনাশক শ’রীরে ঢুকিয়েও করো’না ভা’ই’রাস দূ’র করা যেতে পারে। এই উপায়গুলো নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা যেতে পারে। যার প্র’তিক্রিয়ায় বিশেষজ্ঞরা সাফ জা’নিয়েছেন, ট্রা’ম্পের প’রাম’র্শ মানলে মানুষের প্রা’ণহানিও অসম্ভব নয়।