লকডাউনে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রী কিনতে বের হয়ে’ছিলেন এক ভারতীয় যুবক। কিন্তু বা’সায় ফিরলেন নববধূকে সঙ্গে নিয়ে। ভারতে চলমান লকডাউনে উত্তরপ্রদেশের গজি’য়াবাদের সাহিবাবাদে এমন অদ্’ভুত কাণ্ড করেছে গুড্ডু নামের এক যু’বক। দেশটির সংবাদ সংস্থা এএনআই এ খবর জানিয়েছে।

ছেলের এমন কাণ্ডে তার মাও বিস্মিত। এএন’আইকে তিনি জানিয়েছেন, লকডা’উনে বের হলে পুলিশি ঝা’মেলা পোহাতে হয়। তাই নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য’সামগ্রীর লিস্ট করে তা কিনে আনতে ছেলেকে মুদি দো’কানে পাঠিয়েছিলাম। কিন্তু সে ফিরে আসলো নববধূ নিয়ে। আমি এই বিয়ে মেনে নিতে রাজি নই। এভাবে আমা’কে না জানিয়ে বিয়ে করে হুট করে বউ নিয়ে আ’সার কোনো মানে হয় না।

জানা গেছে, সঙ্গে ম্যারেজ সার্টি’ফিকেট নেই বলে নববধূসহ ছেলে’কে বাসায় ঢুকতে দেননি সেই মা। উল্টো ছেলের এমন কাণ্ডের জন্য থানায় গিয়ে অভিযোগ করে এসেছেন।

এ বিষয়ে গুড্ডু না’মের ওই তরুণ বলেন, দুই মাস আগে হারদওয়ারের আর্য সমা’জ মন্দিরে গোপনে বিয়ে করেছিলাম আমরা। ওই সময় পর্যাপ্ত সাক্ষীর অভাবে আমরা বিয়ের সার্টি’ফিকেট পাইনি। আমি আবারও হারদওয়ারে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে’ছিলাম। কিন্তু লকডাউনের কারণে তা সম্ভব হয়নি। লকডাউন উঠে গেলেই সার্টিফিকেট নিয়ে আসব।

বাজার করতে গিয়ে স্ত্রীকে নিয়ে আসা’র কারণ জানাতে গিয়ে গুড্ডু বলেন, লক’ডাউনের সময় আমার স্ত্রী স্যাভিতা দিল্লিতে ভাড়া বাসায় থাকছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি বাসার মা’লিক তাদের ফ্ল্যাট ফাঁকা করে দেয়া’র নির্দেশ দেন। এমন পরিস্থিতিতে আর কো’নো বাসা ভাড়া পাচ্ছিলাম না।