প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে টুইটারে আনফলো করে দিল হোয়াইট হাউস। গত তিন সপ্তাহ আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ ও প্রধানমন্ত্রীর অফিসকে টুইটারে ফলো করেছিল হোয়াইট হাউস৷ হঠাৎ সব কটি অ্যাকাউন্ট আনফলো করে দিল মার্কিন প্রেসিডেন্টের বাসভবন৷

গত ১০ এপ্রিল থেকে হোয়াইট হাউস তাদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, প্রধানমন্ত্রী অফিস ও রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে ফলো করা শুরু করে৷ মোদি ও রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ দু’জনেই একমাত্র রাষ্ট্রনেতা, যাঁদের হোয়াইট হাউস ফলো করেছিল টুইটারে৷

শুধু মোদি বা রামনাথ কোবিন্দই নন, পিএমও, ওয়াশিংটন ডিসিতে ভারতীয় দূতাবাস, সবই ফলো করেছিল হোয়াইট হাউস৷ হোয়াইট হাউস ফলো করছে, এমন অ্যাকাউন্টের সংখ্যা হঠাৎ বেড়ে হয়েছিল ১৯৷ এখন তা কমে ১৩৷

হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন নিয়ে তখন একটি বিতর্ক তৈরি হয়েছিল৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট রীতিমতো ভারতকে হুমকি দিয়েছিলেন, ভারত হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন না পাঠালে পাল্টা জবাব দেওয়া হবে৷ পরে ভারত হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের উপর রফতানি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়৷ এরপরেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ধন্যবাদ জানান৷

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে মার্কিন রাষ্ট্রপতি হিসাবে ট্রাম্পের প্রথম ভারত সফরকালে তাঁর এবং ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে মধুর সম্পর্কের দৃশ্য গণমাধ্যমের কল্যাণে সারা দুনিয়া দেখেছিল। হঠাৎ কী এমন হলো যে মোদিকে হোয়াইট হাউস আনফলো করে দিল?

হোয়াইট হাউস কর্তৃক টুইটারে মোদীকে অনুসরণ করা আবার হঠাৎ সিদ্ধান্ত বদলে তাঁকে আনফলো করে দেওয়া একটি বিস্ময় হিসাবে এসেছে।

সূত্র- গালফ নিউজ।