করোনায় বিপর্যস্ত পাকিস্তান।দেশটিতে ১০ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত।সিন্ধু, পাঞ্জাব ও খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশে আক্রান্তের সংখ্যা সব চেয়ে বেশি।ইতিমধ্যে দেশটিতে ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়ে মারা গেছে দুইশতাধিকের বেশি মানুষ।সংক্রমণের সংখ্যা বাড়তে থাকায় শঙ্কায় রয়েছেন ইমরান খান।তিনি নিজেও আইসোলেশনে রয়েছেন।ঠিক এমন বিপদের সময় বন্ধুত্বে হাত বাড়িয়ে দিয়েছে এরদোগানের দেশ তুরস্ক।

বুধবার একটি বিশেষ ফ্লাইটে আঙ্কারা থেকে মেডিকেল সরঞ্জামাদি পাঠানো হয় পাকিস্তানে। করোনায় বিরুদ্ধে চিকিৎসকদের যুদ্ধ করতে এ সরঞ্জামাদি পাঠানো হয়েছে বলে জানায় তুরস্ক। এসব সামগ্রী ইসলামাবাদে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত ইহসান মুস্তফা ইউর্দাকুল পাকিস্তানের হাতে তুলে দেন।

তুর্কি রাষ্ট্রদূত আনাদলু এজেন্সিকে বলেন, একটি বিশেষ বিমানে আমাদের পাকিস্তানি ভাইবোনদের জন্য ২০ হাজার মাস্ক, ৫০ হাজার জীবন পিপিই এবং ১ লাখ ফেস শিল্ড দেয়া হয়েছে।

ইউর্দাকুল আরও বলেন, ওই ফ্লাইটটিতে ১৪০ জন তুর্কি নাগরিককে পারিস্তান থেকে ফেরত পাঠানো হয়েছে। তারা এখান থেকে গিয়ে মধ্য এসকিহির প্রদেশে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকবেন।

এ ছাড়াও তুরস্ক ম্যালেরিয়াবিরোধী ১০ লাখ ক্লোরোকুইন ওষুধ দিয়েছে পাকিস্তানকে। এসব ওষুধ করোনা চিকিৎসায় ব্যবহার করা হয়।

ডিসেম্বরে চীনের উহান প্রদেশে প্রথম করোনাভাইরাস দেখা দেয়। এর পর ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের নানা প্রান্তে। ইতিমধ্যেই এ ভাইরাসটিতে ২৫ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। আর এতে সংক্রুমিত হয়ে মারা গেছেন পৌনে দুই লাখ মানুষ।