করোনাভাইরাস কোনো মানুষের শ’রীরে প্রভাব বি’স্তার করা ঠেকাতে কার্যকর অন্তত ১০টি আলাদা ও’ষুধ আগে থেকেই রয়েছে বলে দাবি করেছেন যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের গবেষকরা। 

বিজ্ঞানিরা বলছেন, ভাইরাস’গুলো যখন কোনো দেহের অভ্য’ন্তরে প্রবেশ করে, তখন কোষে সংক্রমণ ঘটিয়ে নিজের বহু অনুলিপি তৈরি করে। তবে কিছু ওষুধ ব্যবহারের ফলে ভাইরাসের কার্যকলাপ ঠেকা’নো যায়।

বিজ্ঞা’নিরা বলছেন, কোষের মধ্যে ভাইরাসের কার্যকলাপ ঠেকা’নোর অন্তত ৪৭টি ওষুধ পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে। তার মধ্যে অন্তত ১০টি করো’নাভাইরাস দুর্বল করে দিতে সক্ষম। 

রোগীর শরীরে করোনা’ভাইরাসকে দুর্বল করে দেওয়ার ওষুধের ব্যাপারে পরীক্ষা চালানো’র পাশাপাশি করোনা আক্রান্ত’দের সারিয়ে তোলার উ’পায়ও খুঁজেছেন গবেষকরা। তাদের দাবি, মার্কি’ন ওষুধ রেমডেসিভির তুলনামূলক বেশি কাজে দিচ্ছে।

গতকাল বৃহস্প’তিবার ন্যাচার জার্নালে গবেষণাটির ব্যাপা’রে একটি প্র’তিবেদন প্রকাশ করা হয়। তা’তে এসব তথ্য উল্লেখ করা হয়।

গবেষকরা বলছেন, অ্যালার্জির ওষুধ ইনগ্রেডিয়েন্ট, ক্লে’মাস্টিন; সিজোফ্রেনিয়ার ওষুধ হালোপেরিডল এবং ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রো- অক্সিক্লোরোকুইন ক’রোনাভাইরাসকে দুর্বল করে দেওয়ার ব্যাপারে কার্যকর। তবে হাই’ড্রো-অক্সিক্লোরোকুইন ব্য’বহারের ফলে হার্টের সমস্যায় ভুগতে থাকা ব্যক্তিদের ওপর বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।

গবেষকরা আ’রো বলেছেন, পরীক্ষামূলক রাসা’য়নিক পিবি২৮ হাইড্রো- অ’ক্সিক্লোরোকুইনের চেয়ে ভাইরাস দু’র্বল করে দেওয়ার ক্ষে’ত্রে ২০ গুণ বেশি কা’র্যকর।

সূত্র : ফা্রন্স টোয়েন্টিফোর